ওসি লিয়াকত আলীকে বিদায় সংবর্ধনা দিলেন রামুর বৌদ্ধ সম্প্রদায়

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
রামু থানার সাবেক অফিসার ইনচার্জ, পরিশ্রমী পুলিশ অফিসার, চৌকস পুলিশ অফিসার ইনচার্জ একেএম লিয়াকত আলীকে বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

২৫ আগস্ট কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের আয়োজনে রামুর বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে এই বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল তিন ঘটিকার সময় রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারে উক্ত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

একুশে পদকপ্র্প্তা, উপসংঘরাজ, কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের মাননীয় প্রধান উপদেষ্ঠা, রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র শারীরিক অসুস্থতার কারণে সভায় সভাপতিত্ব করেন রামু উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বন বিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত সারমিত্র মহাথের।

কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের সভাপতি ভদন্ত প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অমরবিন্দু বড়ুয়া অমল, মুক্তিযোদ্ধা রমেশ বড়ুয়া, সুখেন্দু বড়ুয়া, রাজেন্দ্র বড়ুয়া, বাংলাদেশ বৌদ্ধ সমাজ সংস্কার আন্দোলন কক্সবাজার জেলার সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত মেজর সুবেদার রবীন্দ্রনাথ বড়ুয়া, কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের সহ-

সভাপতি অশোক কুমার বড়ুয়া, সহ-সভাপতি মৃণাল বড়ুয়া, অর্থ সম্পাদক রাজু বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক বিপক বড়ুয়া বিটু, শ্যামল বড়ুয়া, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক কেতন বড়ুয়া, কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদ রামু শাখার সভাপতি লিটন বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক বিপুল বড়ুয়া আব্বু, কক্সবাজার সদর শাখার সভাপতি ভুলু বড়ুয়া, চকরিয়া শাখার সভাপতি শিক্ষক প্রিয়দা বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক সুজিত বড়ুয়া প্রমূখ বিভিন্ন বিহারের প্রতিনিধি বৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

সভায় কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা কেন্দ্রীয় পরিষদ এবং রামু উপজেলা শাখাসহ বিভিন্ন বিহারের পক্ষ থেকে সংবর্ধিত অতিথি একেএম লিযাকত আলীকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সংবর্ধনার জবাবে ওসি লিয়াকত আলী বলেন, আমি যতদিন রামুতে ছিলাম ততদিন এই এলাকার বৌদ্ধ পল্লী, বৌদ্ধ বিহার এবং স্থাপনার সার্বিক নিরাপত্তা বিধানে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছি। আজকে আপনারা রামুর বৌদ্ধ সম্প্রদায় আমাকে যে সম্মান দিলেন আমি তা আজীবন মনে রাখবো। আমি যেখানেই

যোগদান করিনা কেন সেখানে যদি বৌদ্ধ সম্প্রদায় থাকেন আমি আমার রক্ত দিয়ে হলেও তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাবো। এসময় তিনি অনেকটা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। বক্তব্যের শেষে তিনি সকলের কাছে দোয়া চান।

পরে তিনি একুশে পদকপ্র্প্তা, উপসংঘরাজ, কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের মাননীয় প্রধান উপদেষ্ঠা, রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র সাথে দেখা করতে যান এবং তাঁর আশীর্বাদ নেন। এসময় পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের বলেন, শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে না পড়লে আজকে আমিও সভায় উপস্থিত থাকতাম। আপনি আমাদেরকে যেভাবে সেবা দিয়েছেন তা অতুলনীয়। উপকারী ব্যক্তির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো উচিত। আমি আপনার নিরাময় সুদীর্ঘায়ু কামনা করছি।

কক্সবাজার জেলা বৌদ্ধ সুরক্ষা পরিষদের সভাপতি ভদন্ত প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু বলেন, রামু থানার বিদায়ী অফিসার ইনচার্জ একেএম লিয়াকত আলী এই এলাকার বৌদ্ধ পল্লী, বৌদ্ধ বিহার এবং স্থাপনার সার্বিক নিরাপত্তা বিধানে কতখানি অবদান রেখেছেন তা আমরা ভাল করেই জানি। তাই কৃতজ্ঞতাবোধ থেকেই আমরা রামুর বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে তাকে আনুষ্ঠানিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছি। এটা আমাদের কর্তব্য মনে করি।