দিনে ৯০ মিনিটের বেশি ব্যায়াম মানসিক স্বাস্থ্যে প্রভাব ফেলে

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
শরীর সুস্থ রাখতে ব্যায়াম করা জরুরি। তবে সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, প্রতিদিন ৯০ মিনিটের বেশি শরীরচর্চা করলে তা মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

নতুন এই গবেষণায় জানা গেছে, সপ্তাহে ৩ থেকে ৫ দিন ব্যায়াম করলে শরীরের সঙ্গে সঙ্গে মানসিক স্বাস্থ্যও ভাল থাকে । তবে দিনে ৯০ মিনিটের বেশি শরীরচর্চা করলে মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পরে।গবেষণায় মানসিক স্বাস্থ্যের সঙ্গে শরীরচর্চার সম্পর্ক কী তা এখনও পরিষ্কার নয়।

গবেষণায় দেখা গেছে, একেবারেই যারা শরীরচর্চা করেন না তাদের তুলনায় যারা প্রতিদিন তিন ঘণ্টার বেশি সময় সাইক্লিং, অ্যারোবিক্স বা জিম করেন তাদের মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি বেশি ঘটে। দ্যা ল্যানসেট সাইক্রিয়াট্রি-তে প্রকাশিত এক গবেষণা পত্র থেকে জানা গেছে, যেসব ব্যক্তি সপ্তাহে তিন থেকে পাঁচ দিন শরীরচর্চা করেন তাদের মানসিক অবস্থা, যারা নিয়মিত শরীরচর্চা করেন তাদের তুলনায় ভালো থাকে। যারা প্রতিদিন শরীরচর্চা করেন তাদের মধ্যে অবসেশন দেখা যায় যা খারাপ মানসিক স্বাস্থ্যের লক্ষণ।

এ প্রসঙ্গে গবেষক দলের একজন যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ইউনিভার্সিটির সহ অধ্যাপক অ্যাডাম চেকউর্ড বলেন, ‘আগে মনে করা হত, যত বেশি শরীরচর্চা করা যাবে মানসিক স্বাস্থ্য তত ভালো থাকবে। কিন্তু আমাদের গবেষণায় দেখা গেছে আসলে তা ঘটে না।’

তিনি আরও জানান,‘মাসে ২৩ বারের বেশি বা দিনে ৯০ মিনিটের বেশি শরীরচর্চা করলে মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পরে।’

তবে তিনি বলেন, শরীরচর্চার ফলে হৃদরোগ, স্ট্রোক, ডায়াবেটিস ইত্যাদি রোগে আক্রান্ত হওয়ার ভয় কম থাকে।

গবেষণার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পঞ্চাশটা রাজ্যের মানুষের বিভিন্ন ধরনের শারীরিক কর্মকান্ড যেমন-শিশুর দেখাশুনা, বাড়ির কাজকর্ম, বাগান পরিচর্যা, মাছ ধরা, সাইকেল চালানো, জিম করা, দৌড়ানো, স্কিইং ইত্যাদি বিষয়কে গুরুত্ব দেওয়া হয়।গবেষণার জন্য ১০ লাখ ২০ হাজার পূর্ণবয়স্ক মানুষের ওপর পরীক্ষা চালানো হয়।

গবেষণায় দেখা গেছে, যারা খেলাধুলা, সাইক্লিং, অ্যারোবিক্স বা জিমে যেতে অভ্যস্ত তাদের ক্ষেত্রে মানসিক স্বাস্থ্য ক্ষতির ঝুঁকি যথাক্রমে ২২ দশমিক ৩ শতাংশ, ২১ দশমিক ৬ শতাংশ এবং ২০ দশমিক ১ শতাংশ।

সূত্র : এডিটিভি