ফ্রান্সের উবারভিলিয়েতে বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মিলনমেলায় বাংলা ভাষা ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের শিশুদের নৃত্য পরিবেশন

ফ্রান্সের প্যারিস থেকে অনুপম বড়ুয়া টিপুঃ
বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ফ্রান্স সংসদ কতৃক পরিচালিত বাংলাভাষা ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নৃত্য বিভাগের প্রশিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় পরিবেশিত হলো নৃত্যানুষ্ঠান উবারভিলিয়ের মেরীর আয়োজিত ‘নগর উৎসবে’।

গত ৩০ জুন ২০১৮ রবিবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় শুরু হওয়া এই উৎসব প্রতিবছর আয়োজন করে থাকে নগর উৎসব (ফেত দো লা ভিল)।এই উৎসবে বাংলা ভাষা ও সাংস্কৃতিক কেব্দ্রের শিশুরা ছাড়াও অন্যান্য জাতিগোষ্ঠী তাঁদের নিজস্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে তুলে ধরে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

ফ্রান্সের উবারভিলিয়ে শহরে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের জাতিগোষ্ঠীর সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে এই শহরের উৎসব। এই শহরে অবস্থানরত বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মানুষ ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে তাদের নিজ নিজ কার্যক্রম তুলে ধরার পাশাপাশি জাতিগত সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য নিয়ে অংশ নেন। প্রায় শতাধীক এর উপরে দেশ ও সংগঠন এই মেলায় উপস্থিত ছিলো। এই উৎসবকে নিজেদের আন্তকার্যক্রম বিনিময়ের প্রধান উৎসব হিসেবে ধরা হয়। এই উৎসবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, ফ্রান্স সংসদ।

উৎসবে উদীচীর স্টল পরিদর্শন করেন উবারভিলিয়ে শহরের মেয়র মারিয়েম দারকাউই, প্রথম সহকারী মেয়র আন্তনি দাগে, মেরির আন্তর্জাতিক বিভাগের পরিচালক কার্লোস সামেদু, সহকারী মেয়র ক্যামেলা কামিলি শহরে অবস্থানরত বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ। তাঁরা বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য নিয়ে বিশেষ আগ্রহ প্রকাশ করেন।

উদীচী ফ্রান্স সংসদের সভাপতি বাংলা ভাষা ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সমন্বয়ক কিরন্ময় মণ্ডল এর তত্ত্বাবধানে এই উৎসবে উদীচীর প্রদর্শনী স্টলের দায়ীত্তে ছিলেন উদীচী ফ্রান্স সংসদের সাধারন সম্পাদক আহাম্মেদ আলী দুলালের, সহ সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন হাওলাদার, দপ্তর সম্পাদক শুভাশীষ রায় শুভ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য প্রদীপ কুমার বড়ুয়া, কার্যকরী পরিষদ সদস্য বৃষ্টি মণ্ডল, এস কে আল মাহমুদ সুমন, স্বাগত, সম্ভার সহ আরও অনেকে।

এই উৎসবে নৃত্যের দায়ীত্তে ছিলেন বাংলা ভাষা ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নৃত্য বিভাগের প্রশিক্ষক মোঃ শরিফুল ইসলাম ও সুবর্না তালুকদার। উৎসবের নৃত্যাংশের সমন্বয়ের দায়িত্বে ছিলেন ফ্রান্স উদীচীর সহ সভাপতি পলাশ বড়ুয়া।