নেইমারের আলোয় উদ্ভাসিত ব্রাজিল

ক্রীড়া ডেস্কঃ
ব্রাজিলের কোচ তিতে অনেকটা ঘোষণার সুরে বলেছিলেন, জ্বলে উঠবেন নেইমার, নিজের শতভাগ দিতে পারবেন শেষ ষোলোর লড়াইয়ে। কোচের কথাই রাখলেন বিশ্বের সবচেয়ে দামী ফুটবলার। মেক্সিকোর বিপক্ষে নিজে করলেন প্রথম গোল, আর দ্বিতীয়টি করালেন ফিরমিনোকে দিয়ে। ২-০ গোলের মধুর জয়ে ব্রাজিল এখন কোয়ার্টার ফাইনালে, আর যে জয়ের প্রধান রূপকার নেইমার।

ক্লাব ফুটবলে অনেক সাফল্য তার, কিন্তু জাতীয় দলের জার্সিতে সাফল্য বলতে কনফেডারেশনস কাপের শিরোপা আর অলিম্পিকের স্বর্ণপদক। বিশ্বকাপ তো চরম আক্ষেপের জায়গা নেইমারের। চার বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপে কলম্বিয়ার বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে মারাত্মক ইনজুরিতে পড়ে চলে যান মাঠের বাইরে। নেইমারকে ছাড়া সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে ব্রাজিলের বিধ্বস্ত হওয়ার কথা সবারই জানা।

গত ফেব্রুয়ারিতে ফরাসী লিগে খেলার সময় আবার ইনজুরিতে পড়ে ব্রাজিল-ভক্তদের শঙ্কায় ফেলে দিয়েছিলেন নেইমার। তবে ধীরে-ধীরে সেরে উঠে হেক্সা মিশন নিয়ে পা রেখেছেন রাশিয়ায়। গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচে একটু একটু করে তার পারফরম্যান্সের উন্নতি হয়েছে। প্রথম রাউন্ডে অবশ্য একটার বেশি গোল পাননি।

জ্বলে উঠলেন মেক্সিকোর বিপক্ষে। গোল করার পাশাপাশি আক্রমণেও ভূমিকা রেখেছেন নেইমার। প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডাররা অনেক চেষ্টা করেও আটকাতে পারেননি তাকে। বাঁ প্রান্ত থেকে উইলিয়ানের বাড়ানো বলে নেইমারের স্লাইড জালে জড়াতেই উল্লাসে ফেটে পড়ে সামারা অ্যারেনা।

নিজে গোল করে থামেননি। আক্রমণে ভূমিকা রেখে বদলি ফিরমিনোকে গোল পেতে সহায়তা করেছেন। নেইমারের পাসে ফিরমিনো পা ছুঁইয়ে দিতেই আবার সাম্বা তারকাদের উল্লাস!

ম্যাচের আগে নেইমার বলেছিলেন, ‘আমি গোল করতে আশাবাদী। আমি কারও চেয়ে ভালো হতে চাই না, শুধু নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে চাই। এটাই আমার কাছে সবচেয়ে বড় ব্যাপার। বিশ্বকাপ জয় আমার স্বপ্ন।’

নেইমারের হাত ধরে স্বপ্ন পূরণের পথেই রয়েছে ব্রাজিল।