রামুতে অপহৃত দুই সহোদর মুক্তিপনে ছাড়া পেল

আব্দুল হামিদঃ
রামু উপজেলার গর্জনীয়ায় অপহৃত দুই সহোদর শহিদুল্লাহ ও মোঃ রিদুয়ান ১৭ ঘন্টা পর মুক্তিপনের বিনিময়ে মুক্ত হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার গর্জনীয়া ইউনিয়নের বাইশারী-ঈদগড় সড়কের পশ্চিম পাশের্^ জুন্নাইম্যারঘোনা নামক পাহাড়ে অপহরনকারীদের হাতে নগদ ১ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা এবং বিকাশে ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার পর তারা ছাড়া পায়।

অপহৃতদের বড় ভাই মিজানুর রহমান জানান, চুক্তি মোতাবেক অপহরনকারীদের হাতেই তুলে দেওয়া হয় মুক্তিপনের টাকা। টাকা পাওয়ার পর তারা আমার ভাইদের বাইশারী-ঈদগড় সড়কের পশ্চিম পাশের জুন্নাইম্যারঘোনা নামক পাহাড়ে ছেড়ে দেয়। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাড়ীতে রয়েছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অপহৃত দুই সহোদর সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মুক্তিপনের বিনিময়ে ছাড়া পেয়েছে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ৭/৮ জনের সশস্ত্র একটি ডাকাত দল ঘরের দরজা ভেঙ্গে বাড়ীর লোকজনদের জিম্মি করে ৮টি মোবাইল সেট ও নগদ দেড় লক্ষ টাকা সহ বিভিন্ন মুল্যবান জিনিসপত্র লুটপাট করে চলে যাওয়ার পথে তার দুই ছেলেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের রিজার্ভ বনাঞ্চলে নিয়ে যায়।

এছাড়া গত শুক্রবার রাতে একই এলাকা থেকে তিন ব্যক্তিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণকারী চক্রের হাত থেকে কৌশলে দুই ব্যক্তি পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও একই এলাকার আব্দু সালামের পুত্র তাজর মুল্লুক (৩০) কে ৬০ হাজার টাকা মুক্তিপনের বিনিময়ে উদ্ধার করে তার পরিবার।