‘টাইব্রেকার লটারিতে’ হেরেছে স্পেন

ক্রীড়া ডেস্কঃ
রাশিয়ার কাছে টাইব্রেকারে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়াটা মানতেই পারছেন না স্পেন অধিনায়ক সের্হিও রামোস। জানিয়েছেন, ফুটবলের সর্বোচ্চ মঞ্চ থেকে বিদায় নেওয়াটা সবসময়ই কষ্টের।

মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে শেষ ষোলোর ম্যাচটি নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময় ১-১ সমতায় শেষ হওয়ায় গড়ায় টাইব্রেকারে। পেনাল্টি শুটআউটে ৪-৩ গোলে হেরে যায় ২০১০ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়নরা। স্পেনের দুটি শট ঠেকিয়ে দেন রাশিয়ার গোলরক্ষক ইগর আকিনফিভ।

ম্যাচ শেষের পর পরই স্পেনের একটি টিভি চ্যানেলকে রামোস জানান, তার দল সামর্থ্যের মধ্যে সব কিছু করেছে; কিন্তু শেষে স্পট-কিক নামের লটারির ভুল প্রান্তে থাকতে হয়েছে।

“এটা খুব কঠিন। যখনই আপনি বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যান না কেন, সেটা খুব কষ্টের। নিজেদের প্রমাণ করতে দল সম্ভবপর সবকিছু করেছে।”

“আমরা এর চেয়ে বেশি করতে পারতাম না-আমরা সবকিছু দিয়েছি। পেনাল্টিই একমাত্র পথ যার দ্বারা তারা আমাদের বিপদের কারণ হতে পারতো। অতিরিক্ত সময়ে আমরা সবকিছু করেছিলাম।”

“পেনাল্টি হলো লটারি-আর আজ আমরা হেরেছি। কিন্তু এই খেলোয়াড়দের অধিনায়ক হিসেবে আমি গর্বিত।”

অন্তত ১৯৬৬ সালের পর থেকে প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচে ১ হাজারের উপর নিজেদের মধ্যে পাস দেওয়া নেওয়া করে স্পেন। কিন্তু রাশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিতে খুব কম সুযোগই তৈরি করতে পারে তারা। আর শেষে টাইব্রেকারে কোকে ও ইয়াগো আসপাস লক্ষ্যভেদে ব্যর্থ হলে বিদায় নিতে হয় তাদের।