হুমকির মুখে আফগানিস্তান ছাড়ল ‘মেসি বালক’

লিওনেল মেসির ‘সবচেয়ে বড় ভক্ত’ হিসেবে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পরিচিতি পেয়ে যাওয়া এ শিশুটির নাম মুর্তজা আহমাদি।

আফগানিস্তানের গজনি প্রদেশের জাগুরি গ্রামে দরিদ্র কৃষক পরিবারের ছেলে মুর্তজার বাবা আরিফ আহমাদি বিবিসি’কে পাকিস্তান পালিয়ে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে বলেন, মুর্তজার জন্য পরিস্থিতি খুবই ঝুঁকি পূর্ণ হয়ে উঠেছিল। তারা অপহরণের হুমকি পেয়েছিলেন এবং একটি অপরাধ চক্র তাদের কাছে টাকাও চেয়েছে।।

এ ব্যাপারে তিনি বলেন,“কয়েক দিন আগে স্থানীয় একজন গুন্ডা আমাকে ফোন করে। মেসি আমার ছেলেকে টি-শার্ট উপহার দেওয়ার পর থেকেই তার ধারণা,  হয়ত আমার ছেলের জন্য অর্থও পাঠানো হয়েছে এবং সে তার ভাগ চাইছে।”

পলিথিন ব্যাগ কেটে তাতে নীল কালিতে ‘মেসি’ ও ‘১০ নম্বর’ লিখে বানানো আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দলের নীল-সাদা ‘জার্সি’ পরা মুর্তজার ছবি দেখার পর আর্জেন্টিনার ফুটবল তারকা মেসি উপহার হিসেবে তার সই করা দু’টি জার্সি ও একটি ফুটবল মুর্তজাকে পাঠিয়েছিলেন।

ওই সময় বিবিসি’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মর্তুজা বলেছিল, “আমি মেসিকে ভালবাসি। তিনি (মোসি) একজন রাজা।”মেসির সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছার কথাও প্রকাশ করেছিল পাঁচ বছর বয়সী এ শিশুটি।

অপহরণের হুমকির মুখে এখন  মুর্তজার বাবা পরিবার নিয়ে পাকিস্তানের কোয়েটায় আশ্রয় নিয়েছেন এবং আরো ভালভাবে জীবন ধারণের সুযোগ পাওয়ার আশা করছেন। যদিও আট সদস্যের পরিবারটি একটি মাত্র কক্ষে গাদাগাদি করে বাস করছে।

পরিবারটি কিছুদিন পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে ছিল। কিন্তু সেখানে জীবনযাত্রা অনেক ব্যয়বহুল হওয়ায় পরে কোয়েটায় চলে যায়।

বিডিনিউজ