ভালো ঘুমের জন্য ৫ আয়ুর্বেদিক খাবার

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
অনেকেই রাতে ঠিকমতো ঘুমাতে পারেন না। ঘুম না হওয়ার নানা কারণ থাকতে পারে। কিন্তু সুস্বাস্থ্যের জন্য ভালো ঘুম খুব জরুরি। বিশেষজ্ঞরা বলেন, খাদ্যাভ্যাস ঘুমের ওপর অনেক প্রতিক্রিয়া ফেলে। ইনসমনিয়ার সমস্যায় আজকাল ওষুধ নয়, আচরণগত পরিবর্তন ও কগনিটিভি বিহেভিয়র থেরাপির কথা বেশি বলা হচ্ছে।

এই আচরণগত পরিবর্তনের মধ্যে খাদ্যাভ্যাসের কিছু পরিবর্তনও জরুরি। অর্থাৎ, কিছু কিছু খাবার আছে, যেগুলো খেলে ঘুম ভালো হয়। এনডিটিভি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ক্যালসিয়াম, ট্রিপটোফ্যান, ম্যাগনেশিয়ামযুক্ত খাবার ঘুমের জন্য ভালো। তাই দুধ, দুগ্ধজাত খাবার, ডাল, বাদাম, পনির, ডিম, সূর্যমুখীর বীজ, ডুমুর, খেজুর, কিশমিশ ইত্যাদি নিয়মিত খান। ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন ডি যেন পর্যাপ্ত থাকে। তবে পেটে গ্যাস বা বদহজম হলেও ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে। তাই রাতের খাবার বেশি ভারী না হওয়াই ভালো। জেনে নিন ভালো ঘুমের জন্য পাঁচটি খাবারের কথা:

হালকা গরম দুধ:

আয়ুর্বেদ শাস্ত্রমতে, ভালো ঘুমের জন্য হালকা গরম দুধ খুবই কার্যকর। বিষয়টি বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত। দুধের মধ্যে এমাইনো অ্যাসিড ও ট্রিপটোফ্যান থাকে, যা সেরাটোনিন উৎপাদনে সাহায্য করে। সেরাটোনিন মস্তিষ্কে শীতল প্রভাব তৈরি করে, যা ভালো ঘুম এনে দেয়। এ ছাড়া দুধে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে, যা দেহে ঘুম আনতে সাহায্য করে। ‘দ্য কমপ্লিট বুক অব আয়ুর্বেদিক হোম রেমিডিস’ বইয়ের তথ্য অনুযায়ী, হালকা গরম দুধের মধ্যে একটু জায়ফল, এলাচি আর কাজু বাদামের গুঁড়ো মিশিয়ে নিলে দুধের স্বাদও বাড়ে আর ঘুমও ভালো হয়। দুধের সঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেলেও ঘুম ভালো হয়।

চেরি:

মানসিক প্রশান্তি আনতে পারে চেরি। এতে আছে মেলাটোনিন। মেলাটোনিন পিনেয়াল গ্রন্থির হরমোন তৈরি করে, যা ঘুমের চক্র নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। আয়ুর্বেদ শাস্ত্রমতে, চেরিতে যেসব উপাদান আছে, তা মনকে প্রশান্তি এনে দেয় বলে ঘুম ভালো হয়। দৈনিক ১০-১২টি চেরি ফল খেতে হবে।

কাজু বাদাম:

কাজু বাদামের অনেক গুণ। এটি মস্তিষ্কের শক্তি বাড়ায়, এমনকি ভালো ঘুম এনে দিতে পারে। দুধের মতোই এতে ট্রিপটোফ্যান থাকে, যা মস্তিষ্ক ও স্নায়ুর উত্তেজনা প্রশমিত করে। অন্যদিকে, এতে থাকা ম্যাগনেশিয়াম হৃৎস্পন্দন নিয়ন্ত্রণে রাখে। প্রতিদিন একমুঠো কাজু বাদাম খেলে ভালো ঘুম হবে।

কলা:

কলায় আছে প্রচুর পরিমাণ ম্যাগনেশিয়াম। ম্যাগনেশিয়াম ঘুমের জন্য খুব প্রয়োজন। এ ছাড়া কলায় যথেষ্ট পটাশিয়াম থাকে। কলা খেলে প্রাকৃতিক উপায়ে ভালো ঘুম হয়।

ওটস:

ভালো ঘুমের জন্য ওটস দারুণ কার্যকর। এটি পেট ভরা রাখে বলে যাঁরা ওজন কমাতে চান, তাঁদের জন্য উপযোগী। এর বাইরে ভালো ঘুমের জন্যও ওটস খাওয়া যায়। এতে মেলাটোনিন আছে, যা দ্রুত ঘুম আনতে পারে। ওটসের ভেতর কিছু বেরি-জাতীয় ফল ও একটু মধু মিশিয়ে খেলে দ্রুত ঘুম আসবে।

সূত্রঃ প্রথম আলো