নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ১৬ হাজার রোহিঙ্গাকে স্থানান্তরের কাজ শুরু

আব্দুল হামিদ:
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূণ্যরেখার দুর্গম চার আশ্রয়কেন্দ্রর ১৬ হাজার রোহিঙ্গাকে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থী শিবিরে স্থানান্তরের কাজ শুরু হয়েছে।
১৪ জানুয়ারী রোববার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের সাপমারাঝিরি আশ্রয়কেন্দ্রে বসবাসকারী ৪৬ পরিবারের ১৯৯জন রোহিঙ্গাকে সাতটি বাস গাড়িতে করে কুতুপালং শরণার্থীশিবিরে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে কোন ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ছিল না।

শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন করছে। তাঁদেরকে সহযোহিতা করছে রেড ক্রিসেন্ট ও রেড ক্রস। শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের অতিরিক্ত কমিশনার শামসুদ্দোজার নেতৃত্বে নাইক্ষ্যংছড়ির ১৬ হাজার রোহিঙ্গাকে উখিয়ায় সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, কুতুপালং এ রোহিঙ্গাদের জন্য তাঁবু পানির ব্যবস্থা ল্যাট্রিন সব ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইতোপূর্বে উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের শূণ্যরেখা থেকে ৩ হাজার রোহিঙ্গাকে উখিয়ায় সরিয়ে নেওয়া হয়।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম সরওয়ার কামাল বলেন, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পার্বত্য অঞ্চল থেকে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের কুতুপালং ক্যাম্পে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। আগামী ২০দিনের মধ্যে সাপমারাঝিরি, বড় শণখোলা, বাহিরমাঠ ও কোনারপাড়া সীমান্ত থেকে ১৬ হাজার রোহিঙ্গাকে স্থানান্তর করা হবে। এ ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা দরকার।