রামুতে উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনে রিয়াজ উল আলম: উন্নয়ন কর্মকান্ডে আমাদের প্রত্যককে সরকারের সাথে থাকতে হবে

খালেদ শহীদ, রামু:
রামুতে ‘উন্নয়নের রোল মডেল, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ শ্লোগানে তিন দিনব্যাপী ‘উন্নয়ন মেলা’ উদ্বোধন হয়েছে। সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কার্যক্রম প্রান্তিক পর্যায়ে জনগণের সামনে তুলে ধরার উদ্দেশ্যে উন্নয়ন মেলা ২০১৮ আয়োজন করেছে রামু উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় রামু উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে তিন দিব্যাপী ‘উন্নয়ন মেলা’ উদ্বোধন ঘোষনা করেন, রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাজাহান আলি এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা ২০১৮ উদ্বোধন শেষে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এ শোভাযাত্রা’য় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সাংবাদিক সহ সর্বস্তরের জনগণ অংশ নেয়। সকালে সারাদেশে একযোগে উন্নয়ন মেলা ২০১৮ উদ্বোধন ঘোষনা করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন মেলা উদ্বোধন ঘোষনার সঙ্গে সঙ্গে রামু উপজেলা প্রশাসনও বিভিন্ন কর্মসূচীর মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের সূচনা করেন।

রামুতে উন্নয়ন মেলায় উদ্বোধন শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মো. আলী হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফরিদা ইয়াসমিন।

প্রধান অতিথি রিয়াজ উল আলম বলেন, সাধারণ মানুষের জীবনমান উন্নয়নের জন্য সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের চলমান উন্নয়ন সাফল্য ধরে রাখতে হবে। প্রান্তিক পর্যায়ে সরকারের উন্নয়ন কাজে জনগণকে সম্পৃক্ত করার লক্ষে রামু উপজেলা প্রশাসন আয়োজন করেছে ‘উন্নয়ন মেলা ২০১৮’। এ উন্নয়ন মেলা আয়োজনের মাধ্যমে সরকারের ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা ও সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) অর্জনে, সরকারের সাফল্য প্রচার-অর্জনে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য রামুর উন্নয়ন মেলা বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, উন্নয়ন হলো সকলকে নিয়ে অগ্রযাত্রা। সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও মানুষের জীবনমান উন্নয়ন করতে সম্মিলিত রূপরেখা গ্রহণ এবং বাস্তবায়নের প্রতিজ্ঞা গ্রহণ করতে হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে স্বচ্ছ ও জবাবদিহিমূলক সুশাসন নিশ্চিত করাই হলো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার। উন্নয়ন কর্মকান্ডে আমাদের প্রত্যককে সরকারের সাথে থাকতে হবে।

অধ্যাপক নীলোৎপল বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ‘উন্নয়ন মেলা ২০১৮’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা আবদুল মান্নান, উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ জাকির হাসান, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, চাকমারকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সিকদার, গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু মোহাম্মদ ইসমাইল নোমান, কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ সহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ।

মেলায় ‘উন্নয়নের গণতন্ত্র শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র ২০২১’, ‘ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ ২০৪১’, ‘উন্নত বাংলাদেশ’ গড়ার লক্ষে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডে সচিত্র প্রতিবেদন উপস্থাপন করে অর্ধশত স্টলে প্রদর্শনীর মাধ্যমে। এ সব স্টলে একটি বাড়ি একটি খামার, কমিউনিটি ক্লিনিক, নারীর ক্ষমতায়ন, সবার জন্য বাসস্থান, শিক্ষা সহায়তা, ডিজিটাল বাংলাদেশ, দারিদ্র্য বিমোচন, দক্ষতা উন্নয়ন কার্যক্রম, সামাজিক সুরক্ষা ও নিরাপত্তা কর্মসূচী, বিনিয়োগ বিকাশ ও ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ কর্মসূচী সহ সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কার্যক্রম উপস্থাপন ও প্রদর্শন করা হয়।

স্টলে প্রদর্শনীর মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য উপস্থাপন করেছে, পুলিশ প্রশাসন, উপজেলার এগার ইউনিয়ন পরিষদ, ইসলামীক ফাউন্ডেশন, সূর্যের হাসি ক্লিনিক, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প সহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তর।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শেষে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কুইজ, চিত্রাংকন, বির্তক প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।