খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ নেতাকে গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক:

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলায় ইউপিডিএফের কেন্দ্রীয় সদস্য মিঠুন চাকমাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

সদর থানার ওসি তারেক মাহমুদ আবদুল হান্নান জানান, স্লুইচ গেইট এলাকায় বুধবার বেলা ১২টার দিকে তাকে গুলি করা হয়। স্থানীয়রা তাকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

হত্যাকাণ্ডের পর এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেওয়ায় পুলিশ এলাকাটি ঘিরে রেখেছে।

ইউপিডিএফের তথ্য ও প্রচার সম্পাদক বিজন চাকমা বলেন, সকালে তাকে তার অপর্ণা চৌধুরীপাড়ার বাসা থেকে অপহরণ করে নিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়।

তবে কে বা করা এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সে বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারেননি।

পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন ওসি তারেক মাহমুদ।

তবে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে ‘সেনাবাহিনীর সৃষ্টি করা ইউপিডিএফের সাবেক নেতা তপনজ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মার নেতৃত্বে নব্য মুখোশ বাহিনী’র হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মিঠুনের রাজনৈতিক সহকর্মী সুকৃতি চাকমা।

তিনি বলেন, মিঠুনকে খাগড়াছড়ি সদরের ইয়োংদা বুদ্ধ বিহার থেকে ধরে নিয়ে নিউজিল্যান্ড আপার প্যাড়াছড়া এলাকায় গুলি করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষাতত্ত্ব বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী মিঠুন ২০০১ সালের দিকে ইউপিডিএফের ছাত্র সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) সভাপতি ছিলেন।

অর্পণা চৌধুরী পাড়ার বাসিন্দা মিঠুন এলাকায় রাজনীতির পাশাপাশি জুম্ম চাষাবাদের যুক্ত ছিলেন।

সূত্র: বিডিনিউজ।