অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন নিয়ে যে ব্যাখ্যা আ. লীগের

নিউজ ডেস্ক:
বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো যে অর্থে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের দাবি জানিয়ে আসছে, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সেই শর্ত ও তত্ত্বে বিশ্বাস করে না। বিএনপি নির্বাচনে এলে অংশগ্রহণমূলক হবে, না এলে হবে না, ২০ দলীয় জোট নেতাদের এমন ধারণার সঙ্গে সম্পূর্ণ ভিন্নমত পোষণ করছেন ক্ষমতাসীন দলটির নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা। তাদের ভাষ্য, আওয়ামী লীগ নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দলকে আগামী নির্বাচনে চায়। এ জন্য সব দলের প্রতি আহ্বানও থাকবে। সেই আহ্বান সবার জন্য একই রকম হবে। একটি বিশেষ দলের জন্যে আলাদা কোনও পদক্ষেপ নেবে না সরকার। আওয়ামী লীগ নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপকালে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন প্রসঙ্গে ক্ষমতাসীন দলটির এমন মনোভাব জানা গেছে।

আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা বলছেন, গণতন্ত্রের প্রতি আস্থাশীল হলে স্ব-স্ব তাগিদেই প্রত্যেক রাজনৈতিক দলকে নির্বাচনে আসতে হবে। রাজনৈতিক দলে গণতন্ত্রের চর্চা থাকলে কেবল বিএনপিই নয়, সব রাজনৈতিক দলই নির্বাচনে অংশ নেবে। নির্বাচন বয়কট করা কোনও রাজনৈতিক দলেরই নীতি হতে পারে না।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে, আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে। সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশ নিয়ে গণতন্ত্রকে আরও সুসংহত করতে এগিয়ে আসবে।’ তিনি বলেন, ‘তার মানে এই নয় যে, বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে না।’

কাজী জাফরউল্লাহ আরও বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে এলো, অথচ অন্য দলগুলো এলো না; তাহলে নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে? নিশ্চয়ই না। আমরা এই নীতিতে বিশ্বাসী। দুই/একটি দল এলো কিনা, তা নিয়ে আওয়ামী লীগ ভাবছে না।’

ক্ষমতাসীন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য ফারুক খান বলেন, ‘বিএনপিকে নির্বাচনে এনে নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক প্রমাণ করার কোনও ইচ্ছা আওয়ামী লীগের নেই। কোন দল নির্বাচনে আসবে, না আসবে; তা সেই দলের নিজস্ব ব্যাপার। তবে আওয়ামী লীগ চায় ও বিশ্বাস করে, সব দল আগামী নির্বাচনে অংশ নিক।’

আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারণী সূত্রগুলো জানায়, নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক প্রমাণ করতে আওয়ামী লীগ ছাড় দিয়ে বিএনপিকে আনার কোনও উদ্যোগও নেবে না। বিএনপির অংশগ্রহণ ছাড়া নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে না বলে কোনও মহল অভিযোগ তুললেও তা আমলে নেওয়া হবে না। সংবিধান অনুযায়ীই নির্বাচন হবে। আওয়ামী লীগের বিশ্বাস, সেই নির্বাচনে সব দলই অংশ নেবে।’

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবউল আলম হানিফ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে এলেই তা অংশগ্রহণমূলক হবে, এতে বিশ্বাসী নয় আওয়ামী লীগ। শক্তি-সার্মথ্য না থাকলে যেকোনও দল নির্বাচনে আসতে নাও পারে।’ তিনি বলেন, ‘অন্য সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে এলো কিন্তু বিএনপি অংশ নিলো না, তাহলে কি অংশগ্রহণমূলক হবে না? আমরা চাই, বিএনপি আসুক, নিবন্ধিত অন্য রাজনৈতিক দলগুলোও আসুক।’

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে এলো কি এলো না, সেই বিষয়টিই অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে দেখা হচ্ছে, ব্যাপারটি এমন নয়।’

বিএনপিকে নির্বাচনে আনতে কোনও উদ্যোগ তিনি ও তার দল নেবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। গত ৭ ডিসেম্বর সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, ‘বিএনপিকে নির্বাচনে আনতে কি বরণঢালা পাঠাতে হবে? কোনও রাজনৈতিক দল গণতন্ত্রে বিশ্বাস করলে অবশ্যই নির্বাচনে আসবে। কোন দল নির্বাচনে আসবে, না আসবে, সেটা সেই দলের সিদ্ধান্ত।’ বিএনপি নাকে খত দিয়ে এবার নির্বাচনে আসবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন।