কক্সবাজার সিটি কলেজ ইসলামের ইতিহাস বিভাগের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত

বার্তা পরিবেশক:
কক্সবাজার সিটি কলেজ ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের নবীন বরণ- ২০১৭ অনুষ্ঠিত হয়েছে । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ বুধবার কলেজ রিসোর্স ভবনের ৬ষ্ঠ তলায় মিলনায়তনে ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রধান অধ্যাপক এস এম আকতার উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ ক্যথিং অং।

তিনি বলেন,উচ্চ শিক্ষায় কক্সবাজার সিটি কলেজ বিগত ২৫ বছরে বেসরকারী পর্যায়ে যথেষ্ট অবদান রাখছে । বর্তমানে ১৩টি অনার্সসহ বিভিন্ন পর্যায়ে প্রিলিমিনারী ও মাস্টার্স চালু হয়েছে। আরো ৫টি অনার্স চালু হবে। ইসলামের ইতিহাসসহ প্রত্যেকটি বিভাগ ভাল ফলাফলও করছে। আমরা বিশ্বমানের শিক্ষার চ্যালেঞ্জ নিয়েছি। ১০ তলা ভবনের কাজ শীঘ্রই শুরু হবে। আগামী জানুয়ারীতে ২৫ বছর রজত জয়ন্তী পালন করা হবে। এই কলেজে যারা পড়ার সুযোগ পেয়েছে তারা সৌভাগ্যবান।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ আবু মোহাম্মদ জাফর সাদেক , হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান গোপাল কৃঞ্চ দাশ, বাংলা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক শরমিন সিদ্দিকা লিমা , কম্পিউটার সায়েন্স ও ইন্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক আবুল কালাম , ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক আনোয়ার জাহেদ ও অভিভাবকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন খুরুস্কুল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হোসাইন।

উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান অধ্যাপক শাহনুর আকতার , ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক নুরুল আবছার চৌধুরী, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক শাহনেওয়াজ মোর্শেদ , প্রভাষক নাসির উদ্দিন (২) , প্রভাষক জসিম উদ্দিন , প্রভাষক সালাহ উদ্দিন , প্রভাষক মাহমুদা জাহান মুন্নি , প্রভাষক সাইফুদ্দিন আজাদ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বিভাগের ছাত্র আবদুল মান্নান রানা । কোরআন তেলোয়াত করেন মোহাম্মদ বায়েজীদ,গীতা পাঠ করেন রিধূ শর্মা।

অনুষ্ঠানে ছাত্রছাত্রছাত্রীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন রুহুল আমিন, নবাগত ছাত্রছাত্রীদের পক্ষে সানজিদা নাসরিন বৃষ্টি । নবাগত ছাত্রছাত্রীদের ফুল দিয়ে বরণ করেন কলেজ অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ ও শিক্ষক মন্ডলী ।

বক্তব্য শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয় । এতে নৃত্য পরিবেশন করেন সানজিদা নাসরিন বৃষ্টি , কবিতা আবৃত্তি করেন সোহানা আকতার , গান পরিবেশন করেন জান্নাতুল ফেরদৌস মুন্নি, আবদুল মান্নান রানা , রিধূ শর্মা , তৌহিদুল ইসলাম , সুপর্না সুশীল , সোহানা আকতার । পরে মেহমান ও ছাত্রছাত্রীদের আপ্যাায়ন করা হয় ।