শালবন বিহার: আয় বাড়লেও কমছে বরাদ্দ

আমাদের রামু রিপোর্ট:
শালবন বৌদ্ধবিহার ও ময়নামতি জাদুঘর থেকে যে হারে আয় বাড়ছে, ঠিক সে হারেই পরিচর্যা ব্যয় কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে পরিচর্যা বন্ধ হয়ে সংকটে পড়ার সম্ভাবনা আছে বিহারটির। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রত্নতত্ত্ব অফিস ও ময়নামতি জাদুঘর সূত্রে জানা যায়, জাদুঘর ও বিহার থেকে চলতি বছর এক কোটি ২২ লাখ টাকা আয় হলেও ব্যয় বরাদ্দ ধরা হয়েছে মাত্র ৭০ হাজার টাকা। যে বছর ৬৬ লাখ টাকা আয় হয়েছে, সেবার ব্যয় বরাদ্দ ছিলো এক লাখ ৭০ হাজার টাকা।

সম্প্রতি অধিদফতরে একটি আয় ও ব্যয় বরাদ্দের তালিকা পাঠানো হয়েছে। সেখানে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য বই ও পত্রিকার বিল বাবদ ধরা হয়েছে চার হাজার টাকা। ২০ হাজার টাকা ব্যয় বরাদ্দ ধরা হয়েছে বীজ ও উদ্ভিদ কেনার জন্য।

এদিকে বিহার ও জাদুঘর রক্ষণাবেক্ষণের জন্য জনবল সংকটও দেখা দিয়েছে। জানা যায়, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ১৮টি পদের মধ্যে আছেন ১৭ জন। তাদের মধ্যে আবার পাঁচ জন রয়েছে ডেপুটেশনে।

শালবন বৌদ্ধবিহার ও ময়নামতি জাদুঘরের কাস্টোডিয়ান আহমেদ আবদুল্লাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘শালবন বৌদ্ধ বিহার ও ময়নামতি জাদুঘর থেকে প্রতি অর্থবছরে আয় বাড়ছে। তবে সেই অনুপাতে ব্যয় বরাদ্দ পর্যায়ক্রমে কমেছে এবং জনবলেরও সংকট রয়েছে।’ তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলতে চাননি তিনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর চট্টগ্রাম বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক লাভলী ইয়াসমিন তাৎক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন।