দোছড়ির এক নম্বর ওয়ার্ডে তালার গণজোয়ার

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার
আমাদের রামু ডটকম :
এলাকার উন্নয়ন করতে ক্ষমতার প্রয়োজন হয় না, শুধুমাত্র স্বদিচ্ছা ও নিয়ত ঠিক থাকলে আল্লাহ পথ খুল দেন। আর এমন ভাবে যিনি ভাবতে পারেন তিনি হলেন নাইক্ষ্যংছড়ির দোছড়ির এক নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম। যে মানুষটি নিজে কিছু বলেন না, তাঁর কাজই বলে দেয়, তিনি কোন দায়িত্বের জন্য যোগ্য।

রাজনীতিতে মানুষ চিনতে ভুল করলে বা নেতা-কর্মীর আচার-আচরণ চিনতে ভুল করলে নিজেকে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার থেকেই ছিটকে পড়তে হয়। আর সেই বেলায় নুরুল ইসলাম হলেন ব্যতিক্রম!

তিনি যেন এক দেখাতেই মানুষ চিনে ফেলেন! আর চিনতে পারেন বলেই তাঁর মত সুশীল সমাজের নেতা খুঁজে পাওয়া যায় না! যিনি শুধু কথায় নয়, কাজ দিয়েই প্রমাণ করে দেন, তিনি যা ভাবেন তাই করেন!
এই নুরুল ইসলাম যোগ্যতা, মেধা আর বিশ্বস্ততায় ১৯৮৮ সাল থেকে আজ অবদি দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় টানা পঞ্চম বারের মত ইউপি সদস্যের দায়িত্ব পালন করছেন অত্যন্ত সততার সাথে।

আগামী ২৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য দোছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও জনগণের দাবির প্রেক্ষিতে তিনি ফের ইউপি সদস্য পদে প্রার্থী হয়েছেন। ইতোমধ্যে তাঁর নির্বাচনী প্রতীক তালার গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী জালাল আহমদকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে ৬ষ্ঠ বারের মত ইউপি সদস্য নির্বাচিত হবেন নুরুল ইসলাম। এমনটাই মনে করছেন স্থানীয়রা।

এদিকে সরেজমিনে দেখা যায়, নির্বাচনে ফের জয় পেতে নুরুল ইসলাম ব্যাপক গণসংযোগ করছেন। ভোটারদের কাছে তিনি নিজের গ্রহণযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা উপস্থাপন করে এলাকার উন্নয়নে সর্বমহলের সমর্থন কামনা অব্যাহত রেখেছেন।

জানতে চাইলে দোছড়ির এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী নুরুল ইসলাম আমাদের রামু ডটকমকে বলেন, ভোট সুষ্ঠু হলে অবশ্যই জয় নিশ্চিত। ‘আমাকে পুনরায় মেম্বার হিসেবে নির্বাচিত করা হলে এলাকার সর্বশ্রেণি পেশার মানুষের মতামতকে প্রধান্য দিয়ে কাজ করব।

উল্লেখ্য, নাইক্ষ্যংছড়ির দোছড়ি ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার সংখ্যা ৭১১। তৎমধ্যে পুরুষ ৩৯৫ ও নারী ৩১৬।