রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোহাম্মদ হোছাইনের জানাযা সম্পন্ন

রামু প্রতিনিধি।
রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মোহাম্মদ হোছাইন জানাযা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

সোমবার ১১ এপ্রিল বিকাল ৫টায় রামুর পূর্ব মোহাম্মদপূরা আলী পুকুর জামে মসজিদ মাঠে নামাজে জানাযা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন, মাওলানা ছিদ্দিক আহমদ।

রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক আবুল কালামের সঞ্চালনায় নামাজে জানাযাপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রবীন এ শিক্ষকের স্মৃতিচারণে অংশ নেন, রামু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভূট্টো, চাকমারকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুফিদুল আলম, সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হোসেন কোম্পানী ও নুরুল ইসলাম নুরু, সমাজসেবক এডভোকেট সেলিম উল্লাহ, পানিরছড়া এসএইচডি মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. আবদুল হালিম, রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মফিজুল ইসলাম, সিনিয়র শিক্ষক সৈয়দ আহমদ, মাওলানা বখতেয়ার আহমদ, রাজনীতিক ফয়সাল কাদের, মরহুমের জামাতা সাবেক ইউপি সদস্য মোহাম্মদ শাহ আলম।

স্মৃতিচারণকালে বক্তারা বলেন, রামুর শিক্ষাঙ্গনে আদর্শ ও ত্যাগী শিক্ষক মোহাম্মদ হোছাইনের অবদান চিরস্মরনীয় হয়ে থাকবে। তিনি নিজের জীবনকে শিক্ষার কাজে উৎসর্গ করেছিলেন। তাঁর মতো শিক্ষকের শূণ্যতা রামুবাসী আজীবন অনুভব করবে।

উল্লেখ্য, সোমবার ১১ এপ্রিল সকাল ৮টা ১০ মিনিটের সময় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬৫ বছর। তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, চার মেয়ে, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।

মোহাম্মদ হোছাইন ২০১১ সালে রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে অবসর নেন। তবে পরবর্তীতে তিনি এ বিদ্যালয়ে স্বেচ্ছায় শিক্ষকতা পেশায় আমৃত্যু নিয়োজিত ছিলেন। প্রবীণ এ শিক্ষাগুরু দীর্ঘ ৪০ বছর শিক্ষকতা করেন।