উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়ন আ’লীগের প্রার্থী বাছাইয়ের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

শহিদুল ইসলাম, উখিয়া।
উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভায় আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মনোনয়নে একক প্রার্থীর পরিবর্তে একাধিক প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

একাধিক প্রার্থী থাকায় সঠিক কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি আওয়ামীলীগ। সোমবার ১১ এপ্রিল বিকালে তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে বিশেষ বর্ধিত সভায় এসব প্রার্থীর নাম তালিকা করে উপজেলা আওয়ামীলীগের নিকট হস্থান্তরের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়াও তরুণ আওয়ামীলীগ নেতা সেলিম সরওয়ার চৌধুরীর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রস্তাব গৃহীত এবং তার আত্নার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

জালিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান এসএম ছৈয়দ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, উখিয়া আওয়ামীলীগের সদস্য রশিদ আহমদ, খাইরুল আমিন, জমির আহমদ। সোনারপাড়াস্থ জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনে ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রুহুল আমিন চৌধুরী রাসেলের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ নেতা লিয়াকত আলী বাবুল, হাজী ছৈয়দ নুর ভুলু, যুগ্ম সম্পাদক হেলাল উদ্দিন হেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ, শহিদুল্লাহ কায়সার, আবুল কাশেম বাবুল, প্রচার সম্পাদক মুসলেম উদ্দিন কার্জন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আলী হোসেন, আবদু সালাম মধু, কক্সবাজার সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ওয়াহিদুল রহমান রুবেল, যুবলীগের সভাপতি ফরিদুল আলম, সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক জানে আলম, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি তারেক আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মানিক।

এছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বক্তব্য রাখেন।

সভাপতির বক্তব্যে সাবেক চেয়ারম্যান এসএম ছৈয়দ আলম বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আর্দশের একজন কর্মী হিসেবে আজীবন আওয়ামীলীগ রাজনীতির সাথে জড়িত। অক্লান্ত পরিশ্রম করে তৃণমূল নেতাকর্মীদেরকে সাথে নিয়ে ইউনিয়ন পর্যায়ে আওয়ামীলীগকে সাংগঠনিক তৎপরতা বৃদ্ধি করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এছাড়াও সাধারণ ভোটার ও জনসাধারণের সাথে আমার সুসম্পর্ক রয়েছে। আপনারা যদি আমাকে সমর্থন প্রদান ও দলীয় ভাবে নৌকার প্রতীক দেওয়া হলে ইনশাল্লাহ আমি জয়ী হবো।

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রুহুল আমিন চৌধুরী রাসেলেআমাদের রামু ডটকমকে জানান, ইউপি নির্বাচনে দলীয় একক প্রার্থী মনোনয়নে চূড়ান্ত করা যায়নি। সভায় উপস্থিত তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামত ও সম্ভাব্য প্রার্থীদের ঘোষণা অনুযায়ী ৮ জন প্রার্থীর নাম প্রস্তাব করা হয়। উক্ত ৮ জনের নাম তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করে উপজেলা ও জেলা নেতৃবৃন্দের কাছে প্রেরণ করা হবে।

এদিকে ওয়ার্ডের অধিকাংশ সভাপতি- সাধারণ সম্পাদক ও তৃণমূলের নেতাকর্মীরা সাবেক চেয়ারম্যান ও জনপ্রিয় আওয়ামীলীগ নেতা এসএম ছৈয়দ আলমকে একক প্রার্থী হিসাবে নৌকার প্রতীক দেওয়া হলে বিজয়ী হওয়ার সম্ভবনা বেশি বলে জানান।