রামুর ভাষ্যকার দিলীপ শর্মার মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

রামুর জনপ্রিয় ভাষ্যকার দিলীপ শর্মার প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে ৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকালে প্রয়াত দিলীপ শর্মার বাড়িতে বাৎসরিক ক্রিয়াকর্ম ও ম্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এতে প্রয়াত দিলীপ শর্মার পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের মধ্যে হরিপদ শর্মা, সুনীল কুমার শর্মা, পংকজ শর্মা, দয়াল শর্মা, রুপন শর্মা, বড় ছেলে চম্পক শর্মা, ছোট ছেলে রম্পক শর্মা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, দিলীয় শর্মার সুললিত কন্ঠের সাথে পরিচিত রামুসহ জেলার বিভিন্ন জনপদের মানুষ। তার সাবলীল, সৃষ্টিশীল, বৈচিত্রময় কথার বাচনভঙ্গী সকলের কাছে পরিচিত। তিনি অষ্টম শ্রেণিতে পড়াকালীন থেকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদি মাইকে প্রচার করতেন। একারণে গ্রামগঞ্জেও তার রয়েছে অন্যরকম খ্যাতি।

দিলীপ শর্মা ২০১৫ সালের ১১ জানুয়ারি পরলোক গমন করেছেন। দিলীপ শর্মা রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের পূর্ব মেরংলোয়া গ্রামের মৃত পুলিন বিহারী শর্মার
ছেলে।

প্রায় ৩৬ বছর ধরে দিলীপ শর্মা বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সভা, সমাবেশ, ক্রীড়া অনুষ্ঠান, মেলা, দোকান উদ্বোধন, নির্বাচনকালিন প্রার্থীদের পক্ষে মাইকে প্রচারনার জন্য ভাষ্যকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ব্যতিক্রমী এ পেশার পাশপাশি তিনি ৩০ বছর ধরে রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের হাজারীকুল এলাকায় নিজের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত স্কুলে শিক্ষকতা করতেন।

দিলীপ শর্মা ১৯৮০ সালে রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৮২ সালে বাঁশখালী ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি, ১৯৮৪ সালে সাতকানিয়া ডিগ্রী কলেজ থেকে ডিগ্রী পাস করেন। দিলীপ শর্মা ছাত্রজীবনে জাসদ এর অঙ্গসংগঠন বাংলাদেশ জাসদ ছাত্রলীগ রামু শাখার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here