রামুর কচ্ছপিয়ায় বনদস্যুদের মিশন ব্যর্থ করল বিজিবি-বনবিভাগ

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার
আমাদের রামু ডটকম :
রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের গিলাতলি বনবিটের আওতাধীন গহীন অরণ্যের সিবাতলি গ্রামে যৌথ অভিযান চালিয়ে অস্ত্রধারী বনদস্যুদের মিশন ব্যর্থ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও বনবিভাগের সদস্যরা।

শনিবার রাত সাড়ে ১০টা থেকে রোববার ৩ এপ্রিল সন্ধ্যা পর্যন্ত বিশেষ এ অভিযান পরিচালিত হয়।

এসময় রাতের আধারে অবৈধভাবে বনদস্যু কর্তৃক কর্তনকৃত একটি সরকারি সেগুণ বৃক্ষের প্রায় ৫৮ ঘনফুট কাঠ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

index

তবে অভিযানের খবর পেয়ে দস্যু বাহিনীর সদস্যরা পালিয়ে যায়।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন বাঘখালি রেঞ্জ কর্মকর্তা ফখরুল আলম খান ও নাইক্ষ্যংছড়ি ৩১ বিজিবির নায়েব সুবেদার খোরশেদ আলম।

এসময় গিলাতলি বনবিট কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম, বাঘখালি রেঞ্জের সদর বনবিট কর্মকর্তা সমির রঞ্জন শাহ ও কচ্ছপিয়া বনবিট কর্মকর্তা তপন কান্তি পালসহ সঙ্গীয় ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।

গিলাতলি বনবিট কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আমাদের রামু ডটকম কে জানান, রিজার্ভ এর সেগুণ গাছ কর্তনের খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রাতে অভিযান শুরু হয়।

উদ্ধারকৃত মূল্যবান সেগুণ কাঠের আনুমানিক বাজার মূল্য ২ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

index

অভিযানে বিজিবি সদস্যরা উপস্থিত থাকায় বনদস্যুরা পালিয়েছে বলে স্বীকার করেছেন তিনি।

সরেজমিনে গেলে স্থানীয় লোকজন এ প্রতিবেদককে বলেন, সেগুণ বৃক্ষটি নিধন করার আগে রাত ১০টায় অস্ত্রধারী দস্যু বাহিনীর সদস্যরা আশপাশের বসতবাড়িতে ঢুকে সকলের মোবাইল ফোন ও র্টস লাইট ছিনিয়ে নেয়। পাশাপাশি এ খবর কাউকে বললে প্রাণে মেরে ফেলবে বলেও হুমকি দেয় তারা।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে জানান, সন্ত্রাসীরা এলাকায় প্রভাবশালী। তারা বনবিভাগের লোকজনকেও মানেনা। এদের বিরুদ্ধে কিছু বলতে গেলেই হিতে বিপরীত হবে।