ইউপি নির্বাচন নাইক্ষ্যংছড়ি : বিএনপির দুর্গে জয় পেতে মরিয়া আওয়ামীলীগ

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার
আমাদের রামু ডটকম :
নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারি ও দোছড়ি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা ততই তুঙ্গে উঠছে। ভোটারদের কাছে টানতে এক ওয়ার্ড থেকে আরেক ওয়ার্ড চষে বেড়াচ্ছেন চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। পুরো উপজেলা জুড়ে নির্বাচনী আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে। ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।

এ দুই ইউনিয়নে বিগত নির্বাচনের পরাজয়ের গ্লানি মুছতে মরিয়া আওয়ামীলীগ। অপর দিকে বিএনপি চাইছে নিজেদের দূর্গে বিগত দিনের জয়ের ধারা অক্ষুন্ন রাখতে। তবে বিএনপির প্রার্থীদের শংকা নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে কিনা তা নিয়ে।

বাইশারীতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশীকে টপকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মো. আলমকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। এ কারণে বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাহাদুর ও সাবেক চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হাকিমও চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন। এ ইউনিয়নে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন পেয়ে একক প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মনিরুল হক।

দোছড়ি ইউনিয়নে লড়াই হবে ধানের শীষ আর নৌকার মধ্যে। এ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ ও বিএনপির আবদুর রশিদ ছাড়া চেয়ারম্যান পদে আর কোন প্রার্থী নেই। আওয়ামীলীগের মনোনয়ন না পেয়ে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বলে জানা গেছে।

উপজেলা রিটার্নিং অফিস সূত্র জানায়, গত ২৯ মার্চ যাচাই বাছাই শেষে দুই ইউনিয়নে মোট ৮০ জন প্রার্থীর মধ্যে ৭৯ জনকে বৈধতা দেওয়া হয়।

দুই ইউনিয়নে যেসব প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করে বৈধ হয়েছেন তারা হলেন, বাইশারীতে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মনিরুল হক, আওয়ামীলীগ প্রার্থী মোহাম্মদ আলম, স্বতন্ত্র থেকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাহাদুর, সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হাকিম।

সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১,২,৩ নং ওয়ার্ডে লাছিং মার্মা, আয়েশা বেগম, রাজিয়া বেগম

৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডে সেলিনা আক্তার বেবী, হাজেরা খাতুন, সুফিয়া আক্তার, জুবেদা খাতুন

৭,৮,৯নং ওয়ার্ডে সাবেক মহিলা মেম্বার সাবেকুন্নাহার, আয়েশা আক্তার, রুমা আক্তার।

এছাড়াও সাধারণ সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে মো: ইব্রাহিম, আনোয়ার হোসেন

২নং ওয়ার্ডে শাহাব উদ্দীন, আবু তাহের, তসলিম উদ্দিন

৩নং ওয়ার্ডে মাংইয়া মুরুং, মেংছম মুরুং, কেয়াচিং মুরুং, মো: জয়নাল আবেদীন, আবুল হোসেন, মো: বাদল

৪নং ওয়ার্ডে রমজান আলম, দুদু মিয়া, আনোয়ার সাদেক, জসিম উদ্দিন, আলী আহামদ

৫নং ওয়ার্ডে আবদুল জব্বার, মো: নুরুল আজিম, নুর মোহাম্মদ

৬নং ওয়ার্ডে অংক্যচিং মার্মা, থোয়াই ছালা চাক, জাফর আলম বাবুল

৭নং ওয়ার্ডে মোহাম্মদ নুরুল কবির, মো: শফিউল আলম, মো: নুরুল আজিম

৮নং ওয়ার্ডে আবদুর রহিম, আজিজুল হক, মো: বেলাল উদ্দিন

৯নং ওয়ার্ডে আবু তাহের, মো: রেজাউল করিম এর মনোনয়ন ফরমের বৈধতা দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে দোছড়ি ইউনিয়নে বৈধতা পাওয়া চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন, বিএনপির প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান রশিদ আহমদ ও আওয়ামীলীগের প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ।

সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১,২,৩ নং ওয়ার্ডে রেহেনা বেগম, রাশেদা বেগম, হালিমা বেগম

৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডে বুলবুল আক্তার, মোছফেকা খানম

৭,৮,৯নং ওয়ার্ডে জাইতুন নাহার, শামসুন নাহার।

এছাড়াও সাধারণ সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে নুরুল ইসলাম, আবদুল মজিদ, জালাল আহামদ

২নং ওয়ার্ডে আলী আহামদ, মেনরুং ম্রো, মাংপ ম্রো, নুরুল আলম

৩নং ওয়ার্ডে অভিরাম ত্রিপুরা, কাইফুক মুরু, চালাম মুরু, থোয়াই চিং অং চাক

৪নং ওয়ার্ডে জয়নাল আবেদীন, নুর কামাল, মোহাম্মদ ইমরান

৫নং ওয়ার্ডে নুরুল ইসলাম, মো: হোসেন, দিল মোহাম্মদ

৬নং ওয়ার্ডে মুজিবুর রহমান, মো: জমির হোসেন

৭নং ওয়ার্ডে আমীর আলী, নুর মোহাম্মদ, মো: শফিউল আলম, মো: নুরুল আজিম

৮নং ওয়ার্ডে আলী জোহার, শফিকুর রহমান, ৯নং ওয়ার্ডে ক্যমংচিং মার্মা, পাইংপিয় ম্রো, মেনলেং ম্রো এর মনোনয়ন ফরমের বৈধতা দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা অরুণ উদয় ত্রিপুরা আমাদের রামু কে জানান, উপজেলা প্রশাসন, থানা পুলিশ ও গোয়েন্দা প্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দের সহায়তায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই সম্পন্ন হয়েছে।

কৃষি ব্যাংকের ৯৫৬/২৪ নং ঋণ খেলাপী হওয়ায় বাইশারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের প্রার্থী নুরুল হক এর মনোনয়ন ফরম বাতিল করা হয়েছে।

শান্তিপূর্ণ পরিবেশে মনোনয়ন ফরম যাচাই বাছাই কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে বলে আমাদের রামু কে জানান দোছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের রির্টানিং কর্মকর্তা আবু আহমদ।

উল্লেখ্য, নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী ও দোছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩ এপ্রিল। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ৬ এপ্রিল। প্রার্থীরা প্রতীক বরাদ্দ পাবেন ৭ এপ্রিল।