সর্বশেষ সংবাদঃ

দোছড়ি থেকে অপহৃত তামাক চাষী মুক্তিপনে ছাড়া পেল

আব্দুল হামিদ, বাইশারীঃ
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের বাঁকখালী মৌজার লংগদুর মুখ থেকে গত ১৭ এপ্রিল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টায় অপহৃত সাইফুল ইসলাম (১৮)’কে দীর্ঘ ৫দিন পর ২১ এপ্রিল শনিবার গভীর রাতে ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপনের বিনিময়ে ছেড়ে দিয়েছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। অপহৃত সাইফুল ইউনিয়নের মামা-ভাগিনার ঝিরি গ্রামের বাসিন্দা নুর মোহাম্মদের পুত্র।

গত মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে পিতা-পুত্র দুজনকে তামাক ক্ষেতের খামার বাড়ি থেকে সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে গহীন বনে নিয়ে গিয়েছিল। কিছুদূর যাওয়ার পর পিতাকে ছেড়ে দিলেও সাইফুল ইসলামকে ছেড়ে দেওয়া হয়নি। অপহরণের পর থেকে মোবাইল ফোনে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে আসছিল সন্ত্রাসীরা। দীর্ঘ ৫দিন দর কষাকষি পর অবশেষে ৭০ হাজার টাকায় উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের থ্রি স্টার রাবার বাগানের পাশে এনে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে দ্রæত ঘটনাস্থলে পৌঁছান বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের টু আইসি (উপপরিদর্শক) আবু মুসা সঙ্গীয় ফোর্সসহ। অপহৃত সাইফুল ইসলামকে উদ্ধারের পর তার পরিবারের সদস্যদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

তবে ঐদিন অপহরণের পর পরই আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সম্ভাব্য এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আসছিল।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দাবী, অভিযানের ফলে তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। অন্যথায় তাকে গহীন বনে নিয়ে যেত।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আলী হোসেন জানান, অপহৃত ব্যক্তির আত্মীয় স্বজনের সার্বিক সহযোগিতা যদি পাওয়া যেত তাহলে আরো অনেক আগে মুক্তিপন ছাড়াই উদ্ধার সম্ভব হতো। তিনি আরো জানান, পুলিশ-বিজিবির সাড়াশি অভিযান অপহরণের পর থেকে অব্যাহত ছিল। তাছাড়া আগামীতেও সন্ত্রাসীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অপহৃত সাইফুল ইসলামের পিতা নুর আহাম্মদ জানান, সন্ত্রাসীরা তার ছেলেকে অপহরণের পর থেকে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে আসছিল। দীর্ঘ ৫দিন পর ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপনের বিনিময়ে তার ছেলেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

দোছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাবিবুল্লাহ জানান, অপহৃত সাইফুল ইসলাম মুক্ত হয়েছে এবং তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর শেখ জানান, অপহৃত সাইফুল ইসলাম উদ্ধার হয়েছে এবং অপহরণের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা রুজু করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ জানুয়ারী একই এলাকা থেকে ৪ তামাক চাষীকে অপহরণ করেছিল সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। তাদেরকেও দীর্ঘ ৮দিন পর একই কায়দায় মুক্তিপনের বিনিময়ে ছাড়া পেয়েছিল। এছাড়া বিগত সময়ে অপহরণ চক্র সদস্যরা বাইশারী এবং দোছড়ি ইউনিয়ন থেকে দুই ডজনের অধিক লোককে অপহরণ করেছিল। সবাই মুক্তিপনের বিনিময়ে মুক্তি পায়।

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

Shares