সর্বশেষ সংবাদঃ

লামায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে জেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ

উথোয়াই মার্মা জয় :

বান্দরবানের লামা উপজেলায় গজালিয়া ইউনিয়নে দূর্গম লুলাইং হেডম্যান পাড়ায় অগ্নিকান্ডে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত ৯টি ম্রো পরিবারে মাঝে বৃহষ্পতিবার জেলা পরিষদ, জেলা প্রশাসক, উপজেলা প্রশাসন ও গজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

দুপুরে লুলাইং বাজারে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেক পরিবারের মাঝে ৩বান ঢেউটিন, ২০ কেজি চাউল, ৯টি পরিবারকে নগদ ৬ হাজার টাকা করে ৫৪ হাজার টাকা, নিহত প্রতিবন্ধী শিশু পরিবারকে ৩০ হাজার টাকা, হাড়ি-পাতিল, ১০টি কম্বল, খাদ্য শস্য ও পড়নের কাপড়সহ অন্যান্য নিত্য ব্যবহার্য্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার খিন ওয়ান নু সভাপত্বিতে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইসমাইল। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তফা জামাল, গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও লামা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বাথোয়াইচিং মারমা, মৌজা হেডম্যান চিংপাশ ম্রো, ইউপি সদস্য নিপিউ ম্রো, মহিলা সদস্য হাইচনু মারমা, সহ প্রমূখ।

ত্রাণ বিতরণ কালে অতিথি’রা বলেন, এখন শুষ্ক মৌসুম চলছে। আমাদের সকলকে সচেতন থাকতে হবে। রান্না-বান্না’র পর চুলার আগুন নিভিয়ে ফেলতে হবে। তখন প্রত্যেক বাড়িতে এক বালতি পানি আর এক বালতি বালু রাখার অনুরোধ করে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত ও নিহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। ত্রাণ বিতরণ শেষে ঘটনাস্থলে সরেজমিনে পরিদর্শনে যান জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তফা জামাল, গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও লামা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বাথোয়াইচিং মারমা।

উল্লেখ্য, গজালিয়া ইউনিয়নে দূর্গম লুলাইং হেডম্যান পাড়ায় ১৪ ফেব্রুয়ারি বুধবার সাড়ে ১২টায় এক ম্রো পাহাড়ি ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাতে আগুনের লেলিহান শিখা চারপাশে ছড়িয়ে পড়লে ৯টি কাঁচা বসতঘর সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে যায় আর প্রতিবন্ধী শিশু প্রেনচং ম্রো (১৬) অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায়।

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

Shares