সর্বশেষ সংবাদঃ

লামায় আগুনে পুড়ে এক প্রতিবন্ধী যুবকের মৃত্যু : ৯ বসত ঘর পুড়ে ছাই

নিজস্ব প্রতিনিধি :

বান্দরবানের লামা উপজেলায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১জন প্রতিবন্ধী কিশোরের মৃত্যুৃ সহ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি পাড়ার ৯টি কাঁচা বসতঘর ভস্মীভূত হয়েছে। বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে উপজেলার গজালিয়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা লুলাইং হেডম্যান পাড়ায় এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত কিশোরের নাম প্রোচং ম্রো (১৬)। সে লুলাইং হেডম্যান পাড়ার বাসিন্দা মৃত মেনলাং মুরুংয়ের ছেলে। প্রতিবন্ধী কিশোরকে উদ্ধার করতে গিয়ে আহত হয় আরো ২জন। অগ্নিকান্ডে ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থরা। রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

সূত্র জানায়, দুপুর ১২টার দিকে লুলাইং হেডম্যান পাড়ার একটি রান্নাঘরের চুলা থেকে আগুন জ্বলে ওঠে। মুহুর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় তিন ঘণ্টাব্যাপী আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে মাংক্রাত মুরুং, থংপ্রে মুরুং, লংথন মুরুং, রুমরই মুরুং, রিংয়ং মুরুং, মেনওয় মুরুং, মেনওয় মুরুং, লাংপুং মরুং ও পালে মুরুংয়ের বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে নগদ টাকাসহ প্রায় ১৫লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্থ মাংক্রাত ও লাংপুং মুরুং জানান, প্রতিদিনের মত পাড়ার লোকজন সকালে জুমচাষে যায়। এ ফাঁকে একটি বসতঘরের রান্না ঘরের চুলা থেকে হঠাৎ আগুন লাগে। পাড়ার লোকজন ঘরে না থাকার কারণে দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব সম্ভব হয়নি। ফলে ঘরের মালামাল রক্ষা করা সম্ভব হয়নি।

গজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা অগ্নিকান্ডের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পরিষদের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদেরকে সহযোগিতা করা হবে।

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

Shares