সর্বশেষ সংবাদঃ

আইডিয়াল ট্রাস্ট পিইসি মেধাবৃত্তির পুরস্কার ও গুণীজন সংবর্ধনা

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
আইডিয়াল ট্রাস্ট পিএসসি মেধাবৃত্তি-২০১৭ এর পুরস্কার বিতরণ ও গুণীজন সংবর্ধনা সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার (২০ ডিসেম্বর) সকালে কক্সবাজার সদরের বাংলাবাজার আইডিয়াল ইন্সটিটিউট প্রাঙ্গনে সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনার ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার প্রফেসর আব্দুল হামিদ। অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন আইডিয়াল ট্রাস্ট এর চেয়ারম্যান শিক্ষাবিদ, শিক্ষাউদ্যোক্তা অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান।

আইডিয়াল ট্রাস্ট পিএসসি মেধাবৃত্তি-২০১৭ এর সভাপতি ও কক্সবাজার সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ এম.এ বারীর সভঅপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনার ইউনিভার্সিটির সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফয়সাল, কক্সবাজার সরকারী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন, পিএমখালী ইউপি চেয়ারম্যান ও আইডিয়াল ট্রাস্ট পিএসসি মেধাবৃত্তি-২০১৭ এর সচিব মাস্টার আবদুর রহিম, ঝিলংজা ইউপি চেয়ারম্যান টিপু সুলতান, পিএমখালী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান শহীদুল্লাহ (বি.কম), ভারুয়াখালীর প্রবীন শিক্ষক মাস্টার সোলতান আহমদ। অনুষ্ঠানে আগত অতিথি ও শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের উদ্দেশ্যে আইডিয়াল ট্রাস্ট বিষয়ে বিস্তরিত তুলে ধরে বক্তৃতা করেন পিএসসি মেধাবৃত্তি-২০১৭ এর যুগ্ম-সচিব এম. দেলোয়ার হোসেন।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন- প্রবীণ সমাজসেবক দিদারুল আলম চৌধুরী, সরওয়ার আলম চৌধুরী, সাংবাদিক ইমাম খাইর, মো. নিজাম উদ্দিন, স্থানীয় সমাজসেবক ওবায়দুল হালিম মিয়াজি। এছাড়া বিভন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, আইডিয়াল গ্রুপের পরিচালক, উপদেষ্ঠারা উপস্থিত ছিলেন।

আইডিয়াল ট্রাস্ট এর পক্ষ থেকে এবার গুণীজন হিসেবে সংবর্ধিতরা হলেন- জেলা শিক্ষা অফিসার ছালেহ উদ্দিন চৌধুরী, পিটিআই সুপার (অব.) মোহাম্মদ মমতাজুল হক ও ঈদগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বৃত্তিপ্রাপ্তদের পূর্বঘোষণা অনুযায়ী ক্রেস্ট, সনদ ও নগদ টাকা দিয়ে পুরস্কৃত করা হয়। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন শিক্ষক এইচ এম ইয়াছিন। পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন শিক্ষক জিল্লুর রহমান।

গত ২৭ অক্টোবর আইডিয়াল বৃত্তি অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি বছরের ন্যায় ৫০ নাম্বার নির্ধারণ করে বাংলা, ইংরেজি ও গণিত বিষয়ের ওপর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। কক্সবাজার সদর (পৌরসভা বাদে) ও রামু উপজেলার বিভিন্ন স্কুল থেকে প্রায় ১ হাজার ৫০ জন পিইসি (পিইসি) পরীক্ষার্থী এতে অংশগ্রহণ করে। ফলাফল প্রকাশ হয় ১ ডিসেম্বর।

বৃত্তিতে উত্তীর্ণদের ক্রেস্ট, সদন ছাড়াও ট্যালেন্টপুলে ১ম স্থান ৫ হাজার টাকা, ২য় স্থান ৩ হাজার টাকা, ৩য় স্থান ২ হাজার টাকা, ১ম গ্রেড (৪র্থ-১০তম) ১৫০০ টাকা, ২য় গ্রেড (১১তম-২০তম) ১২০০ টাকা প্রাইজমানি দেয়া হয়। ইউনিয়ন ভিত্তিক ১ম স্থান ১ হাজার, ২য় স্থান ৮০০ টাকা এবং ৩য় স্থান অধিকারী পায় ৫০০ টাকার প্রাইজমানি।

এছাড়া অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমূহ থেকে প্রতি পাঁচজনে একজন এবং প্রতি দশজনে তিনজন হারে বিশেষ বৃত্তি প্রদান করে আয়োজকরা।

গ্রামীন পর্যায়ে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে জেলার ইতিহাসে তৃতীয় বারের মতো ব্যতিক্রমী এ পরীক্ষা আয়োজন করে আইডিয়াল ট্রাস্ট। ২০১৫ সালে প্রথম এই বৃত্তি পরীক্ষার প্রবর্তন করে নজির সৃষ্টি করেছে আইডিয়াল ট্রাস্ট। এই বৃত্তি গ্রামীন জনপদে শিক্ষাকে আরোবেশী উৎসাহিত করছে বলে মনে করেন প্রাজ্ঞজনেরা। উল্লেখ্য, আইডিয়াল ট্রাস্টের এই মেধাবৃত্তি কোন ধরণের দান-অনুদান ছাড়াই শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিজস্ব তহবিলে পরিচালিত হয়ে আসছে।

 

মন্তব্য করুন

(বিঃ দ্রঃ আপনার ইমেইল গোপন রাখা হবে) Required fields are marked *

*

Shares