উখিয়ায় নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে গৃহবধু উধাও!

শহিদুল ইসলাম, উখিয়া।
উখিয়ায় লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা ও মূল্যবান কাপড় চোপড় নিয়ে অন্য জনের হাত ধরে পালিয়ে গেছেন ২ সন্তানের জননী ঝর্না বড়ুয়া। টাইপালং গ্রামের মৃত বদিউল আলম এর ছেলে শফিকুর রহমান প্রঃ শফির সাথে পরকীয়ার ঘটনার জের ধরে ওই গৃহবধু পালিয়েছে বলে জানা গেছে।

২০ মার্চ উখিয়ার কুতুপালং পি.এফ পাড়া গ্রামের মৃদুল বড়ুয়ার স্ত্রী ঝর্না বড়ুয়া এ ঘটনা ঘটায়। স্থানীয় লোকজন জানান, কুতুপালং পি.এফ পাড়া গ্রামের মৃদুল বড়ুয়ার স্ত্রী ঝর্না বড়ুয়া (৩০) রাজাপালং ইউনিয়নের টাইপালং গ্রামের বদিউল আলম এর ছেলে শফিকুর রহমান প্রঃ শফির সাথে দীর্ঘ ১ বছর ধরে পরকীয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে তাদের সম্পর্ক আরো গভীর হয়। এমনকি ২ জনের মধ্যে বহুবার শারিরীক মেলামেশা হয়। গৃহ বধু ঝর্না বড়ুয়াকে নিয়ে খয়রাতি পাড়া গ্রামের তাদের এক আত্মীয়ের বাড়ীতে আশ্রয় নিলে খবর পেয়ে স্থানীয় জনসাধারণ ২ জনকে ধরে ইউপি সদস্য রুহুল আমিন মেম্বার এর নিকট সোপর্দ করেন।

গত ২২ মার্চ চাঞ্চল্যকর পরকীয়ায় আসক্ত এ প্রেমিক জুটিকে পরিত্যক্ত মটর ঘর থেকে ধরে ফেলার পর ইউপি মেম্বার রুহুল আমিন তাদের স্ব-স্ব আত্মীয়কে ডেকে উভয়কে তাদের জিম্মায় ছেড়ে দেন। এদিকে অসহায় মৃদুল বড়ুয়ার অভিযোগ, নগদ ২০ হাজার টাকা, ১ ভরি স্বর্ণ ও মূল্যবান কাপড় চোপড় নিয়ে পালিয়ে গেলেও ২ শিশু সন্তান নিয়ে দুঃচিন্তায় দিন যাপন করছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় গৃহ বধু ঝর্না বড়ুয়াকে উদ্ধারের জন্য মৃদুল বড়ুয়া বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।