‘শিল্পপতি ফারুক আহামদ শিক্ষার প্রসার ও জনকল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করেছিলেন’

সোয়েব সাঈদ:
রামুতে বিশিষ্ট শিল্পপতি মরহুম আলহাজ্ব ফারুক আহামদ এর স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহষ্পতিবার (২০ এপ্রিল) সকালে শিল্পপতি মরহুম আলহাজ্ব ফারুক আহামদ প্রতিষ্ঠিত কাউয়ারখোপ হাকিম রকিমা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কাউয়ারখোপ হাকিম রকিমা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কিশোর বড়ুয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি ও বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ওসমান সরওয়ার মামুন।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার, সহকারি শিক্ষক ওসমান গনি, প্রনব বড়ুয়া, ছৈয়দ আলম, মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, মোস্তফা কামাল, লুৎফুন্নাহার, রহিমা বেগম, আনজুমান আরা এনি, মো. সরওয়ার, নাছির উদ্দিন, দেবাশীষ চক্রবর্তী, আবদুল্লাহ (ছোট), ওবাইদুল্লাহ, রাশেল, সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও ছাত্রছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, আলহাজ্ব ফারুক আহামদের বর্ণিল জীবনের স্মৃতিকথা তুলে ধরেন। একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ি হয়েও তিনি শিক্ষার প্রসার ও জনকল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করেছিলেন। রামুর অবহেলিত জনপদ কাউয়ারখোপে তিনি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে তিনি পুরো এলাকাটিকে আলোর দিশা দিয়েছেন। তিনি ছিলেন সত্যিকারের দেশ প্রেমিক। তাঁর অবদান এ জনপদের প্রতিটি আজীবন শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে যাবে।

উল্লেখ্য, রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের কৃতিসন্তান বিশিষ্ট শিল্পপতি মরহুম আলহাজ্ব ফারুক আহামদ মেঘনা সী ফুডস এর স্বত্ত্বাধিকারি ছিলেন। তিনি ১৯৭৫-৭৬ সনে সর্বাধিক রপ্তানিকারক হিসেবে রাষ্ট্রপতি পদক এবং জাতীয় অর্থনীতিতে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ চারবার সিআইপি নির্বাচিত হন। তিনি একক অনুদানে প্রতিষ্ঠা করেন অনেক শিক্ষা ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। যার মধ্যে কাউয়ারখোপ হাকিম রকিমা উচ্চ বিদ্যালয় উল্লেখযোগ্য। গত ১৪ এপ্রিল ছিলো কীর্তিমান এ ব্যক্তির ১৫ তম মৃত্যু বার্ষিকী।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here