অগ্রসার বৌদ্ধ অনাথলয় উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব সম্পন্ন

উজ্জ্বল কান্তি বড়ুয়া:
রাউজানের পূর্ব গুজরার অগ্রসার বৌদ্ধ অনাথালয় উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে শিল্পপতি লায়ন্স জেলার সাবেক গভর্নর লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া বলেছেন, শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। শিক্ষাক্ষেত্রে অনগ্রসারতাই আমাদের প্রধান সংকট। তিনি শিক্ষার বিস্তারে আজ থেকে পঞ্চাশ বছর আগে এমন অজপাড়াগাঁয়ে একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে মহাসংঘনায়ক বিশুদ্ধানন্দ মহাথের যে অনবদ্য ভূমিকা রেখেছেন তা জাতি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ রাখবে।’

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষাবিদ সদ্ধর্মজ্যোতি সুনন্দ মহাথের। অমল বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন কনফিডেন্স সিমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া।

প্রধান বক্তা ছিলেন দৈনিক আজাদীর চিফ রিপোর্টার হাসান আকবর। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাপানের সেইসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. মিয়োকো হোসোডা, চট্টগ্রাম মেমন হাসপাতালের চিফ কনসালটেন্ট ডাঃ প্রীতি বড়ুয়া, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রাক্তন পরিচালক ডাঃ সুমন বড়ুয়া, রাউজান উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) জোনায়েদ কবির সোহাগ, ১০নং পুর্ব গুজরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এম. আব্বাস উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রতুল বড়ুয়া, উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মং হলা চিং, বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার মহাসচিব বোধিমিত্র মহাথের এবং প্রাক্তন শিক্ষার্থী অধ্যাপক তৃপ্তি বড়ুয়া। অগ্রসার মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রীরা বরণসংগীত, ছাতানৃত্য পরিবেশন করেন এবং অগ্রসার বৌদ্ধ অনাথালয়ের শিক্ষার্থীরা পরিবেশন করেন মনোমুগ্ধকর ত্রিপুরা ও মারমা নৃত্য।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া ,প্রধান অতিথি পবন চৌধুরী , প্রধান বক্তা হাসান আকবর, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সুমিত্তানন্দ থের সহ অতিথিবৃন্দ প্রদীপ প্রজ্বলন ও কেক কেটে সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী বক্তব্যে লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া বলেন, সুদীর্ঘ ৫০ বছর এই বিদ্যালয় মানুষের মাঝে শিক্ষার আলো বিতরণ করতঃ সুন্দর সুষ্ঠু সমাজ ও দেশ বিনির্মাণে অনস্বীকার্য ভূমিকা রেখে চলেছে।

মহা সংঘনায়ক বিশুদ্ধানন্দ মহাথের’র প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয় এলাকায় শিক্ষার বিস্তারের মাধ্যমে মানুষের সুখ শান্তি ও অগ্রগতিকে বেগবান করেছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশ গঠনে বলিষ্ঠ ভুমিকা পালন করবে। দেশ মাতৃকার সেবায় নিজেকে উৎসর্গিত করার চেয়ে বড় আনন্দ আর কিছুতে নেই বলেও লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, শিক্ষার বিস্তারই জাতিকে সমৃদ্ধ করছে। আমরা মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হচ্ছি। উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার ক্ষেত্রে শিক্ষাই সবচেয়ে বড় নিয়ামক হয়ে দেখা দেবে। তিনি একটি সত্যিকারের সোনার বাংলাদেশ গড়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বেশি বেশি লেখাপড়া করারও আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, শিক্ষা মানুষকে অন্ধকার থেকে আলোতে নিয়ে যায়। কলুষমুক্ত সমাজ ও দেশ গঠনে এবং আত্মোন্নয়নে শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। সমাজের অন্ধকার হতাশা বিদুরিতকরণে শিক্ষা হোক একমাত্র পাথেয়। শিক্ষিত সমাজই পারে সুখী সুন্দর দেশ ও জাতিগঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে। তাই শিক্ষাই হোক জাতীয় মুক্তি ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের মুল হাতিয়ার।
প্রধান বক্তা হাসান আকবর বলেন, এই বিদ্যালয় ৫০ বছরে বহু প্রতিভার সৃষ্টি করেছে। যারা দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ে পরিবার, সমাজ আর রাষ্ট্রের কল্যাণে কাজ করছেন। এই বিদ্যালয়ের বহু শিক্ষার্থী বিদেশের মাটিতেও নিজেদের মেধার স্বাক্ষর রেখে দেশের সুনাম সুখ্যাতি ও সমৃদ্ধিতে অবদান রাখছেন। আমি আশা করছি বর্তমানের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা যথাযথ জ্ঞানাজর্নের মাধ্যমে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠবে।

অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে সকালে শিক্ষার্থীরা আনন্দ র‌্যালি বের করে। সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হয় শিক্ষার্থীদের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান। স্মৃতিচারণ সভায় সভাপতিত্ব করেন উদযাপন পরিষদের কার্যকরী সভাপতি শিক্ষক সমীরন বিকাশ বড়ৃয়া, প্রধান অতিথি ছিলেন সহ-উপসংঘনায়ক ভদন্ত জীবনানন্দ মহাথের, উদ্বোধক ছিলেন অগ্রসার কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক ভদন্ত সুমিত্তানন্দ থের, বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাঃ সুমন বড়ুয়া, মং হলা চিং, অধ্যক্ষ সুলেকা পাল, অধ্যাপিকা স্মৃতি বড়ুয়া প্রমুখ। সকালে অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ভদন্ত সংঘানন্দ থেরো ও অধ্যাপিকা স্বপ্না বড়ুয়া লিলা ।

প্রাক্তন শিক্ষার্থী, অতিথি শিল্পী ও স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।