স্বাগত প্রধানমন্ত্রী

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার
আমাদের রামু ডটকম :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজারের রম্যভূমি রামুতে আসছেন আজ বৃহস্পতিবার।

তিনি সকাল ১০টা ৫মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর হয়ে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছবেন। সেখান থেকে সড়ক পথে রওনা দিয়ে সকাল ১০টা ৫০মিনিটে রামু সেনানিবাসের ভিভিআইপি কমপ্লেক্সে ‘অরণ্য নিবাস’ এ উপস্থিত হবেন।

সেনা সূত্র জানিয়েছে, এ সফরে প্রধান অতিথি হিসেবে রামু সেনানিবাসে নবগঠিত দশ পদাতিক ডিভিশনের অধীনে দুই পদাতিক বিগ্রেডসহ সাতটি ইউনিটের পতাকা উত্তোলন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

লোকবল ও সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দশ পদাতিক ডিভিশনে যুক্ত হচ্ছে আরও একটি বিগ্রেড সহ সাতটি ইউনিট। যার পতাকা উত্তোলন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Prime -3

এসময় সেনা সদস্যদের সশস্ত্র সালাম গ্রহণ করবেন তিনি।

সেইসঙ্গে সেনানিবাসের বীর স্মরণী নামক সড়ক, দশ পদাতিক ডিভিশনের স্মৃতিস্তম্ভ অজেয়, বীরাঙ্গন নামের মাল্টিপারপাস শেড, মাতামুহুরি নামের কম্পোজিট ব্যারাকের উদ্বোধন ও চারটি এস এম ব্যারাকের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনসহ সেনা সদস্যদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে রামুর বিভিন্ন স্থানে প্লেকার্ড স্থাপনসহ ব্যাপক সাজসজ্জা করা হয়েছে। পাশাপাশি উপজেলা জুড়ে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন।
অনুষ্ঠান উপলক্ষে এরই মধ্যে সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সেনাবাহিনী।

প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে নানা প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
কক্সবাজার-রামু আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল আমাদের রামুকে জানান, প্রধানমন্ত্রীর রামু আগমন একটি মাইল ফলক হয়ে থাকবে। তিনি বলেন, ২০১৫ সালের পয়লা মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দশ পদাতিক ডিভিশনের সূচনা করেছিলেন। সেই থেকে এ অঞ্চলের নানামুখী উন্নয়নে অবদান রাখছে রামু সেনানিবাস।

Prime -22

সূত্র মতে, সকাল ১১টায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশনের অধীনস্থ নবগঠিত সদর দপ্তর ২ পদাতিক বিগ্রেড এর পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দিবেন প্রধানমন্ত্রী।

নামাজ ও মধ্যাহ্ন বিরতি শেষে দুপুর ২টায় কক্সবাজার বিমান বন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে ২টা ৩৫ মিনিটে ঢাকায় যাত্রা করার কথা রয়েছে।