চকরিয়ায় গুলি ছুড়ে অপহরণ করা এসএসসি পরীক্ষার্থীকে উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১

চকরিয়া প্রতিনিধি,
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বালুরচরের একটি খামার বাড়ি থেকে অপহৃত এসএসসি পরীক্ষার্থীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ সময় অপহরণকারী চক্রের হোতা মো. মহিউদ্দিনকেও (২৭) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মহিউদ্দিন ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ঘোনারপাড়া এলাকার আবু ছিদ্দিকের ছেলে।

৭ মার্চ সোমবার সকাল ১১টার দিকে চকরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আলমগীর হোসেন তাঁদের উদ্ধার ও গ্রেপ্তার করেন।

গত শনিবার দিবাগত রাতে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের একটি বাড়ি থেকে পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ও গুলি ছুঁড়ে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করেছিল দুর্বৃত্তরা।

এসআই আলমগীর আমাদের রামুকে বলেন, ‘মোবাইল ট্রেকিং ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বালুরচর এলাকার জনৈক নুরুল আমিনের খামার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় একটি বদ্ধ ঘর থেকে অপহৃত এসএসসি পরীক্ষার্থীকে উদ্ধার এবং মহিউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্য অপহরণকারীরা পালিয়ে যায়।’

গত শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের হাঁসেরদিঘী এলাকার একটি বাড়ির দরজা ভেঙে পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ওই এসএসসি পরীক্ষার্থীকে অপহরণ করেছিল দুর্বৃত্তরা। চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গেলে গুলি ছুঁড়ে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় ওই ছাত্রীকে।

অপহৃত হওয়ার কারণে ওই ছাত্রী গত রোববার অনুষ্ঠিত শারীরিক শিক্ষা পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি।

তবে স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, মহিউদ্দিনের সঙ্গে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবারের কাছে তাকে বিয়ের প্রস্তাবও পাঠান মহিউদ্দিন। কিন্তু ছাত্রীর পরিবার তাকে অন্যত্র বিয়ে দিতে চাইলে ছাত্রীটি রাজি হয়ে যায়। এরপর থেকে ছাত্রীটিকে তুলে নেওয়ার হুমকি দিতে থাকেন তিনি।

এসআই আলমগীর আরও বলেন, ওই ছাত্রীর বড়ভাই ছিদ্দিক আহমদ বাদি হয়ে অপহরণের অভিযোগে মহিউদ্দিনকে প্রধান আসামি করে ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

মহিউদ্দিনকে চকরিয়া জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।