উমখালী এএম উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রি-ক্যাডেট স্কুলে পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন

রামু প্রতিনিধি:
রামুর দক্ষিন মিঠাছড়ি ইউনিয়নের উমখালী এ,এম উচ্চ বিদ্যালয় এবং আমির মরতুজা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

উমখালী এ,এম উচ্চ বিদ্যালয় এবং আমির মরতুজা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা, বিশিষ্ট আইনজীবী এডভোকেট মোহাম্মদ আমির হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. নাসির উদ্দিন।

শনিবার ৫ মার্চ বিকাল ৫ টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, দক্ষিন মিঠাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মনিরুল আলম চৌধুরী, কবি কাজী মোহাম্মদ আলী, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হোসাইন আহমদ আনসারী, জারাইলতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোছাইনুল ইসলাম মাতব্বর, এসএ সোহরাব হোসেন, খোদেস্তা মনির, এডভোকেট মনজুর আলম, এডভোকেট খালেদুল কবির, ব্যবসায়ি মাহবুব আলম কাজল, নাসরিন জাহান, বাদল চন্দ্র ধর প্রমূখ।

দক্ষিন মিঠাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোহাম্মদ জামাল হোসাইনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উমখালী এ,এম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খোকন ধর, আমির মরতুজা প্রি-ক্যাডেট স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি বেগম নাসরিন জাহান, প্রধান শিক্ষক বুলবুল ধর বক্তব্য রাখেন।

রাতে উমখালী এ,এম উচ্চ বিদ্যালয় এবং আমির মরতুজা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা পরিবেশ করে এডভোকেট আমিন হোসাইন রচিত নাটিকা ‘শিক্ষা-অশিক্ষা: যৌতুক’।

‘সুরের মূর্ছনা’য় একক গান পরিবেশন করেন, কক্সবাজার বেতার শিল্পী ছালেহা নাসরিন স্বপ্না। এছাড়া সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা দেশাত্ববোধক গান, নৃত্য, কৌতুক পরিবেশন করে উপস্থিত দর্শকদের মাতিয়ে রাখে।

অনুষ্ঠান উমখালী এ,এম উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আবিদ হাসান সোহেল, মিজানুর রহমান, বাবু বড়ুয়া, শিপু ধর, মনি ধর, আমির মরতুজা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের শিক্ষক পলি ধর, কৃঞ্চা ধর, শিবু ধর, সাদেকা আকতার সহ বিদ্যালয়ের অভিভাবক, ছাত্রছাত্রী সহ এলাকার শতশত জনতা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, একজন ব্যক্তি থেকে একটি দেশের উন্নয়ন, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ নির্ভর করে শিক্ষার উপর। তাই সন্তানের সুন্দর ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার জন্য অভিভাবকদের পাশাপাশি দেশের সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে সচেতন হতে হবে।