চকরিয়ায় ১৭টি চিংড়িঘের দখল, গুলি বর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার, চকরিয়া
আমাদের রামু ডটকম:
শতাধিক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার চিংড়ি জোনের ১৭ টি ঘের দখল করেছে সন্ত্রাসীরা। গত ৪ মার্চ শুক্রবার রাতে উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের চরণদ্বীপ মৌজায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘের মালিকেরা অভিযোগ করে বলেন, প্রভাবশালী এক আওয়ামীলীগের নেতার নির্দেশে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী মো. করিম ও আবু তাহেরের নেতৃত্বে শুক্রবার রাতে ৬০-৭০ জন স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী তাঁদের লিজপ্রাপ্ত ১৭টি চিংড়িঘের দখলে নিয়েছে। এ সময় প্রাণভয়ে চিংড়িঘেরের কর্মচারীরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে রাতে পুলিশ গেলেও কোনো কাজ হয়নি।

চিংড়ি ঘেরের কর্মচারীরা বলেন, সবেমাত্র চিংড়ির মৌসুম শুরু হয়েছে। শুক্রবার কর্মচারীরা ঘেরে মাছ ধরেছেন। কিন্তু রাত আটটার দিকে গুলির শব্দে সবাই আতংকিত হয়ে কর্মচারীরা সবাই পালিয়ে যায়। এরপর সন্ত্রাসীরা একে একে ১৭টি চিংড়ি ঘের দখল করে নেয়।

ঘের মালিক মামুনুল করিম বলেন, ‘চিংড়ি ঘের দখল ও লুটপাটের বিষয়ে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

ঘের মালিক ও চিরিংগা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘প্রভাবশালী এক ব্যক্তির নির্দেশে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আমাদের ১৭টি ঘের (প্রতিটি ১০ এক বিশিষ্ঠ) দখল করে নিয়েছে।

বিএনপি-জামায়াতের জোট সরকারের সময়ও আমরা একদিনের জন্য ঘেরে যেতে পারিনি। এখন আবার আওয়ামীলীগের নেতার নির্দেশে দখল হচ্ছে। বিষয়টি পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।’

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জহিরুল ইসলাম খাঁন বলেন, ‘ভোগলিক দিক থেকে চিংড়ি ঘেরগুলো দুর্গম এলাকায় অবস্থিত হওয়ায় ডাকাতি বা দখলের খবর পেলেও তাৎক্ষনিক যাওয়া যায় না। তবে ঘের মালিকদের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ দিলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’