পেকুয়ায় ইউপি নির্বাচনে ব্যাপক গনসংযোগে নেমেছে প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া
আমাদের রামু ডটকম:
পেকুয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে প্রার্থীদের কর্মব্যস্ততা ব্যাপকভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে।
৪ মার্চ শুক্রবার জুমার নামাযের পর প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থীদের মধ্যে অনেকে গনসংযোগে শুভ সুচনা করেছেন। জুমার পবিত্র ওই দিনটিকে তারা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে নামাযের পর পর চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীরা গনসংযোগে নেমে পড়েছেন।

উজানটিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান এম.শহিদুল ইসলাম চৌধুরী আনুষ্টানিক নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসেবে শুক্রবার সোনালী বাজারে তার প্রথম নির্বাচনী অফিসের কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করেছেন। বিকেলে স্থানীয়দের নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের ওই প্রার্থী এ অফিসটি শুভ সুচনা করেছেন। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে শহিদুল ইসলাম চৌধুরী এ প্রথম দলীয় প্রতীক নিয়ে ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হচ্ছেন।

মগনামা ইউনিয়নেও চেয়ারম্যান প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণা ও গনসংযোগে গতকাল ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করেছেন। লাঙ্গল প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মো.ইউনুস চৌধুরী গতকাল শুক্রবার বিকেলে সোনালী বাজারে গনসংযোগ করেছেন।

সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা কোমর বেধে প্রচারণায় মাঠে নেমেছেন। ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান এড.কামাল হোসেন, বিএনপির প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান বাহাদুর শাহ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহ আলম প্রচারণায় ব্যস্ত হয়েছেন।

রাজাখালীতে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী আজমগীর চৌধুরী ও ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন সিকদারসহ ওই ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্ধি চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

মগনামা ইউনিয়নে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান খাইরুল এনাম, ধানের শীষ প্রতীক প্রার্থী শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শহিদুল মোস্তফা চৌধুরীও ব্যাপকভাবে গনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

বারবাকিয়ায় আ’লীগ প্রার্থী জি.এম কাসেম, ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সাইফুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান এ.এইচ.এম বদিউল আলম মানুষের বাড়িতে গিয়ে কোশল বিনিময় করছেন।

শীলখালীতে বিএনপির প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল হোসেন ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কাজিউল ইনসান প্রচার-প্রচারণায় পার করছেন ব্যস্ত সময়।

টইটংয়ে হেভিওয়েট তিন প্রার্থী নির্বাচনী ময়দানে নেমেছেন। এদের মধ্যে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, বিএনপির সাবেক চেয়ারম্যান রমিজ উদ্দিন আহমদও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ মাঠকে সরব করেছেন।