পর্যটকদের হয়রানী রোধে কিটকট, ফটোগ্রাফার ও জেড স্কি কর্মীদের পোষাক দিচ্ছে ট্যুরিস্ট পুলিশ

এম.এ আজিজ রাসেল:
কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের একের পর এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ প্রশংসা কুঁড়িয়েছে পর্যটকসহ সাধারণ মানুষের। সিনিয়র এসপি হোসাইন মো: রায়হান কাজেমীর সুপ্ত চিন্তা থেকে এসব উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এবার তিনি আরেকটি মহৎ কাজ বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে।

সৈকতে পর্যটকদের হয়রানী রোধে কিটকট, ফটোগ্রাফার ও জেট স্কী কর্মীদের নির্দিষ্ট পোষাক দিচ্ছেন। পোষাকগুলোতে সামনের অংশে কিটকট, ফটোগ্রাফার ও জেট স্কীর নির্ধারিত মূল্য লেখা থাকবে। পেছনে লেখা থাকবে ট্যুরিষ্ট পুলিশের হেল্প ডেস্কের নাম্বার। কোন পর্যটক হয়রানীর শিকার হলে ওই নাম্বারে কল করলে ১০ মিনিটের মধ্যে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এছাড়া প্রত্যেকটা পোষাকে নাম্বারিং করা থাকবে। এতে ওই কর্মীকে সহজে সনাক্ত করা যাবে। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বিভিন্নভাবে প্রতারিত হয়ে আসছিল আগত পর্যটকরা। কিটকট, বীচ বাইক ও ফটোগ্রাফাররা যা ইচ্ছা তাই করত। অতিরিক্ত টাকা হাতিয়ে নিত পর্যটকদের কাছ থেকে। তাদের বিরুদ্ধে পর্যটকদের অহরহ অভিযোগের ভিত্তিতে ওই পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে বলে জানান কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের সিনিয়র এসপি হোসাইন মো: রায়হান কাজেমী।

তিনি জানান, পর্যটকদের কোন ধরনের হয়রানী করতে যেন না পারে সেইজন্য তাদের পোষাকে নির্দিষ্ট মূল্যসহ নির্ধারণ করা হয়েছে। ফটোগ্রাফারদের পোষাকের কালার লাল, কিটকট কর্মীদের সবুজ ও বীচ-বাইক কর্মীদের কমলা কালারের পোষাক দেয়া হবে। শীঘ্রই আনুষ্ঠানিকভাবে এসব পোষাক হস্তান্তর করা হবে। তিনি পর্যটকদের নিরাপদ ভ্রমনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।