উখিয়ায় জমির উপর আদালতের নিষেধাজ্ঞাঃক্ষিপ্ত প্রতিপক্ষের পাল্টা মামলা দায়ের

হানিফ আজাদ, উখিয়া।

উখিয়ায় জমির উপর আদালতের নিষেধাজ্ঞা দেওয়ায় মামলার বাদী সহ অপরাপর লোকজনদেরকে মিথ্যা মামলায় ফাসানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের খোন্দকার পাড়া গ্রামের ঠান্ডা মিয়া বাদী হয়ে তাদের দখলীয় এক একর ৪১ শতক জমির উপরে বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালত উখিয়া হতে নিষেধাজ্ঞা আনায় ক্ষিপ্ত হয়ে একই এলাকার মৃত আছমত আলীর ছেলে ফিরুজ আহম্মদ বাদী হয়ে তার জেটাত ভাইয়ের ছেলে কামাল উদ্দিনকে গত ২২ ফেব্রুয়ারি দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে শাহ জব্বরিয়া রাইচ মিলের সামনে সস্ত্র হামলা চালিয়েছে মর্মে ৮ জনকে আসামী করে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত নং – ২ কক্সবাজারে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে একটি মিথ্যা সাজানো মামলা দায়ের করে তাদেরকে হয়রানি করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে মামলার বাদী ঠান্ডা মিয়া গংরা হুমকির মূখে পড়ছে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ঠান্ডা মিয়া বাদী হয়ে কক্সবাজার বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালত উখিয়ায় অপর ৪২/২০১৪ ইং প্রতিপক্ষ আবুল কালাম, আবুল মঞ্জুর, আরেফা বেগম, পারভিন আক্তার, তাহমিনা বেগম, জমিলা খাতুন, জুবাইদা বেগম, নুর জাহান বেগমের বিরুদ্ধে জমির উপর নিষেধাজ্ঞা আনায় প্রতিপক্ষরা ক্ষিপ্ত হয়ে নুরুল আলম ড্রাইভার, দিলদার আলম, ফকির আহম্মদ, ছৈয়দ নুর, জাহাঙ্গীর আলম, ফরিদ আলম, বেদার আলমের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত নং- ২ উখিয়া মিথ্যা ভিত্তিহীন একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং -৫৮/২০১৬ ইং।

মূলত এক একর ৪১ শতক জমি নিয়ে বিরুদের কারণে ফিরোজ আহম্মদ আদালতে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে ঠান্ডা মিয়া গংদের হয়রানি করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এলাকাবাসীরা জানান, ওয়ারিস সূত্রে প্রাপ্ত জমিতে ঠান্ডা মিয়া গংরা দীর্ঘ দিন ধরে ওই জমি ভোগ করে আসছিল। প্রতিপক্ষরা ওই জমি জবর দখল ও পায়তারা করার লক্ষে মেতে উঠেছে।

ফিরোজ আহম্মদের মিথ্যা মামলাটি তদন্তপূর্বক রিপোর্ট দেওয়ার জন্য আদালত উখিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, উখিয়া থানার ওসি মোঃ হাবিবুর রহমান জানান, মামলাটি তদন্ত করে আদালতে রিপোর্ট দাখিল করা হবে।