রামু আজিজুল উলুম মাদ্রাসার সভায় মূফতি আবদুল হালিম বুখারী-শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে কওমী মাদ্রাসার গৌরবোজ্জ্বল অবদান রয়েছে

সোয়েব সাঈদ:
চট্টগ্রাম আল-জামিয়া আল-ইসলামিয়া পটিয়ার প্রধান পরিচালক ও আঞ্জুমানে ইত্তেহাদুল মাদারিস (কওমী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড) বাংলাদেশ এর সেক্রেটারী জেনারেল আল্লামা মুফতি আব্দুল হালিম বুখারী বলেছেন, কওমী মাদ্রাসাসমূহ আবহমানকাল ধরে পবিত্র কুরআন-সুন্নাহ্র সঠিক তা’লীম ও ইসলামী তাহযীব-তামাদ্দুনের যথাযথ চর্চার মাধ্যমে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর প্রকৃত অনুসারী, দেশপ্রেমিক আদর্শ নাগরিক গড়ার মহান খেদমত আঞ্জাম দিয়ে আসছে।

শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণের লক্ষ্যে ঐতিহ্যবাহী কওমী মাদ্রাসা শিক্ষাধারার গৌরবোজ্জ্বল অবদান সর্বজন স্বীকৃত।
তাই কওমী মাদ্রাসা সমূহের সাথে দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর নাড়ি ও আত্মার সম্পর্ক বিদ্যমান। এজন্য কওমী মাদ্রাসা সম্পর্কে বিষোদগার করলেই দেশের আপামর জনসাধারনের কলিজায় আঘাত লাগে। তিনি বলেন, সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী কওমী মাদরাসায় জঙ্গি তৈরী হয়না বলে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা যদি অন্তর থেকে বলে থাকেন তাহলে তিনি সাধুবাদ পাওয়ার যোগ্য।

কক্সবাজার জেলার ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা কেন্দ্র রামু রাজারকুল আজিজুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানার ৪২তম বার্ষিক সভায় প্রধান মেহমান হিসেবে তাকরির পেশকালে তিনি এসব কথা বলেন।

গত সোমবার ২৯ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১ টা থেকে শুরু হওয়া এ দ্বীনি মাহফিল চলে রাত ১২ টা পর্যন্ত।
নির্বাহী পরিচালক মাওলানা মোহছেন শরীফ এর তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত এ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, ঢাকা বসুন্ধরা ইসলামিক রিসার্চ সেন্টারের প্রধান পরিচালক ও ফকিহুল মিল্লাত আল্লামা মূফতি আবদুর রহমান (রহ.) এর বড় ছেলে আল্লামা মূফতি আরশাদ রহমানী।

মাহফিলে বিশেষ বক্তা ছিলেন, রাজঘাটা মাদ্রাসার মুহাদ্দিস আল্লামা ছৈয়দ আলম আরমানী, কক্সবাজার কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের খতিব ও সীতাকুন্ড আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মাহমুদুল হক, রাজঘাটা মাদরাসার সহকারি পরিচালক মাওলানা মূফতি হাবিবুল ওয়াহেদ, চট্টগ্রাম দারুল হুদা মাদরাসার পরিচালক মাওলানা মোহাম্মদ হোছাইন, পশ্চিম আশরাফিয়া মইনুল ইসলাম মাদরাসার পরিচালক মাওলানা আতাউল করিম, প্রবীন আলেম মাওলানা সিরাজ উল্লাহ।

সভায় প্রথক অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন, মাদরাসার পরিচালক মাওলানা আমান উল্লাহ সিকদার, চাকমারকুল মাদরাসার পরিচালক ও শায়খুল হাদিস মাওলানা মুহাম্মদ জাকের, জোয়ারিয়ানালা এমদাদুল উলুম মাদরাসার পরিচালক মাওলানা আবুল হাছান।

মাদ্রাসার ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় এ মাদ্রাসার হেফজ বিভাগ থেকে সদ্য হেফজ সমাপ্তকারি ৬ জন ছাত্রকে দস্তারে ফজীলত (পাগড়ি) প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, সভা উপলক্ষ্যে মাদ্রাসার ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা বিভাগ থেকে ফকিহুল মিল্লাত আল্লামা মূফতি আবদুর রহমান (রহ.) ও আওলাদে রাসূল (স.), আল্লামা সৈয়দ আবদুল মজিদ নদীম (রহ.) স্মরণে মাসিক ‘আল-আজিজ’ এর বিশেষ সংখ্যা প্রকাশিত হয়। সেই সাথে আল আজিজ এর আরবী সংখ্যাও প্রকাশিত হয় এবং মাসিক আল আজিজ এর আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও সংস্কৃতি সংখ্যা প্রদর্শনীতে স্থান পায়।

এছাড়াও হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুরের একক রচনাবলী, মাদ্রাসার নূরানী বিভাগের কোমলমতি ছাত্রদের আরবি, বাংলা, ইংরেজি হস্তলিপির বিশেষ প্রদর্শনী দেয়া হয়। এসব পরিদর্শন করে সভায় আগত অতিথিবৃন্দ ও দর্শনার্থীরা অভিভূত হন।

সভায় বক্তারা আদর্শ সমাজ বিনির্মাণের ওলামায়ে কেরামের অবদান, হাফেজ কোরআন এর মর্যাদা সহ ইসলামী জীবনধারা নিয়ে গুরত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মাদ্রাসার প্রাক্তন ছাত্র মাওলানা আছাদ উল্লাহ, মাওলানা জসিম উদ্দিন, মাওলানা জায়নুল আবেদিন, শিক্ষক মাওলানা তাজ উদ্দিন প্রমূখ।

সভা শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনায় মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।