এলপিএল ক্রিকেটের শিরোপা মিনহাজ ডি দলের

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :
কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে শিশির ভেজা ভোরে শুক্রবার সকাল আটটায় শুরু হচ্ছে ম্যাচ। এই জন্য টস জিতেই প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন মিনহাজ ডি দলের অধিনায়ক মানিক। সাফল্যও এসেছে। প্রতিপক্ষ নাঈম বি দলকে আটকে দেয়া হয়েছে ৭৮ রানের মধ্যেই। তাঁরা সবকটি উইকেট ও বল ব্যবহার করে এ রান সংগ্রহ করেন। দলের পক্ষে অধিনায়ক আতিক সর্বোচ্চ ১৯ রান নেন। মাজেদ ৪টি আর শুভ পেয়েছে ৩ উইকেট।

৭৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে মিনহাজ ডি দলের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা ভাল করতে না পারলেও দলের জন্য ত্রাতা হয়ে উঠেন মিডল অর্ডারের রুবেল এবং শুভ। তাঁরা নৈপূন্য জুটি বেঁধে দলকে জয়ের চূড়ান্ত লক্ষ্যে নিয়ে যান। রুবেল ২৩ আর শুভ করেন ২২ রান। নাঈম বি দলের পক্ষে অরনব ৩ উইকেট নেন। সর্বশেষে ছয় উইকেট ও ছয় বল হাতে রেখেই ওভার বাউন্ডারি মেরে জয় নিশ্চিত করে ম্যাচ এবং টুর্ণামেন্ট সেরার পুরস্কারও অর্জন করেন শুভ। তখন স্টেডিয়াম জুড়ে উল্লাস আর উল্লাস।

football-2-copy

পরে এলপিএল ক্রিকেট ২০১৬ এর চ্যাম্পিয়ন এবং রানার আপ ট্রফি বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির আইন বিভাগের প্রধান, সহকারী অধ্যাপক নাঈম আলিমুল হায়দার। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষক মোঃ জিয়াউল হক, মিনহাজ উদ্দিন, মাইসোমা সুলতানা ও সায়িদা তালুকদার রাহি।

উল্লেখ্য, আইন বিভাগের উদ্যোগে ২৩ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই টুর্ণামেন্টে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির আইন বিভাগের ৮৪জন খেলোয়াড় ছয়টি দলে বিভক্ত হয়ে অংশগ্রহণ করেন।

আমার মতে, এলপিএল ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্যতা ফিরে এসেছে। এটি একটি অনন্য উদ্যোগ। এ ধরণের আয়োজন প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলায় মনোযোগি করে তুলবে। এর ফলে প্রতিহত করা সম্ভব হবে জঙ্গিবাদ ও মাদক নামের ক্যান্সারকে।