রামুতে ছাত্র ইউনিয়ন-উদীচীর সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী প্রতিবাদী মানবন্ধন

আমাদের রামু প্রতিবেদক:
বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ মানে সাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ নয়। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়তে হলে সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে সরকারকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।
রোববার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে রামু উপজেলার চৌমুহনী চত্বরে আয়োজিত প্রতিবাদী মানববন্ধন ও গান মিছিলে বক্তারা এ কথা বলেন।

বক্তারা আরো বলেন, হিন্দু মন্দির ও বসতবাড়িতে হামলাকারীদের কোন ধর্ম থাকতে পারে না। রাষ্ট্র হিন্দু ও সাঁউতাল জনগোষ্ঠীকে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। আজ সাঁউতাল জনগোষ্ঠী ভিটে-মাটি ও তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত।

সাম্প্রতিক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু মন্দির ও বসত বাড়ি ভাংচুর এবং গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁউতাল জনগোষ্ঠীর উপর নির্যাতনের প্রতিবাদে এ কর্মসূচীর আয়োজন করে রামু উপজেলা ছাত্র ইউনিয়ন ও উদীচী।

উদীচীর সাধারণ সম্পাদক কবি তাপস মল্লিকের সভাপতিত্বে ও ছাত্র ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সিপ্ত বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাছির উদ্দিন আহমদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আয়াছ মাবুদ, রামু কালি মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি রতন মল্লিক, রামু পূজা উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক তপন মল্লিক, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সহ সভাপতি অর্পন বড়ুয়া, রামু উপজেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জয় বড়ুয়া, উদীচীর সদস্য বিপ্লব ও সরওয়ার।

এতে সংহতি জানান জেলা বৌদ্ধ সমিতির সাধারণ সম্পাদক জেমসেন বড়ুয়া, আওয়ামীলীগ নেতা আনছারুল হক ভুট্টো, রামু উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক ওসমান গণি, হিন্দু ধর্মীয় নেতা ননী গোপাল দে, রামকুট তীর্থধাম পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ সিকদারসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদী গান পরিবেশন করেন উদীচীর সদস্যরা।