সংখ্যালঘু ও আদিবাসীর ওপর হামলার দ্রুত বিচার দাবি

ক্রাইম রিপোর্টার:
আইন ও সালিশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সুলতানা কামাল বলেছেন, সংখ্যালঘু ও আদিবাসীদের ওপর হামলা-নির্যাতনের বিচার দ্রুত করতে হবে। তা না হলে এ হামলা-নির্যাতনের দায় সরকারকেই নিতে হবে।

রোববার রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে ছাত্র-জনতার প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বর্তমানে সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দিয়ে যেভাবে দেশ পরিচালনা করা হচ্ছে, তাতে অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ একটি সুন্নি-সালাফি মুসলমান পুরুষের দেশে পরিণত হওয়ার আশঙ্কা আছে। ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নাসিরনগর হামলাসহ সাঁওতাল পল্লিতে হামলায় প্রমাণ হয়েছে রক্ষকই ভক্ষকের ভূমিকায় রয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল পল্লি থেকে উচ্ছেদকৃতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়াসহ তাদের বাপ-দাদার জমিতে পুনর্বাসনের দাবি জানান সুলতানা কামাল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তানজিম উদ্দিন খান বলেন, বর্তমানে গণতন্ত্রের বদলে রাক্ষসতন্ত্র চলছে। তৃণমূল পর্যায়ে প্রশাসন ভক্ষকে পরিণত হয়েছে। শুধুমাত্র জামায়াতবিরোধী অবস্থান নেওয়ার জন্য যদি বর্তমান সরকারের সাত খুন মাপ হয়ে যাচ্ছে বলে আমরা মনে করি, তাহলে আমরা বোকার স্বর্গে বসবাস করছি।

সমাবেশে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নাসির উদ্দিন, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকি আক্তার, ভূমি রক্ষা সংহতি কমিটির বর্তমান সভাপতি জাকারিয়া শিশির, হাসনাত কাইয়ুম, সাখাওয়াত টিপু, সিপিবি নেত্রী লুনা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশ শেষে সাঁওতালদের নিয়ে নাটক পরিবেশন করে তীরন্দাজ নাট্যগোষ্ঠী।